ইউরোপ জুড়ে

আরানজুয়াজ জেল: পরিবার নিয়ে থাকা যায় যে কারাগারে

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: জেলখানার নাম শুনলে সবার আগে যে বিষয়টির কথা মাথায় আসবে সেটা হচ্ছে সেখানকার কষ্টের কথা, কঠোর নিয়মানুবর্তিতার কথা।

র জেলের ভেতরের কষ্টের জীবন সম্পর্কে কমবেশি সব মানুষেরই ধারণা আছে। পরিবার-পরিজন, বন্ধুমহল তথা পৃথিবীর সব কোলাহলের সম্পূর্ণ বাইরে জেলের ভেতরের জীবন কোন সাধারণ মানুষ শখের বসে উপভোগ করতে যাবে না।

আপনজনদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যেখানে সব সময় কঠোর নিয়ম এবং শৃঙ্খলার মাঝে থাকতে হয়। কিন্তু কখনো কি শুনেছেন জেলের ভেতরেও কোন কয়েদী তার পরিবার নিয়ে থাকতে পারবে?

যদি শুনে না থাকেন, তাহলে জেনে রাখুন এমন একটি জেলখানা আছে যেখানে কয়েদীদের তার পরিবারের সাথে থাকার সব সুযোগ-সুবিধা দেয়া হয়। এই অদ্ভুত রকমের জেলখানাটি স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদ থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত, যার নাম আরানজুয়াজ জেল।

এই জেলে ৩৬টি ফ্যামেলি সেল বানানো হয়েছে। সব রকমের সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ সেলগুলোতে কয়েদীরা তাদের বউ-বাচ্চাসহ থাকার সুব্যবস্থা আছে। জেলটির এই সেলগুলোতে কয়েদীদের সন্তান লালন-পালনের ব্যবস্থাসহ আছে বাচ্চাদের খেলনা সামগ্রী এবং আছে আকর্ষণীয় শিশুপার্ক।

তবে সব কয়েদী এই সুযোগ-সুবিধা পাবেন না। শুধুমাত্র যেসব স্বামী-স্ত্রী উভয়েই কয়েদী এবং তাদের ছোট বাচ্চা আছে কেবলমাত্র তারাই এই সেলে থাকতে পারবেন।

আরানজুয়াজ জেলে ১৯৯৮ সাল থেকে শুরু করা এই সেলগুলো, যে সকল কয়েদীর ছোট বাচ্চা আছে এবং তারা স্বামী-স্ত্রী উভয়ই সাজাপ্রাপ্ত, তাদের কথা চিন্তা করেই বানানো হয়।

সাধারণত দেখা যায় স্বামী-স্ত্রী উভয়ই অপরাধী হলে এবং তারা জেলে গেলে তাদের সন্তানদের অধিকাংশই নষ্ট হয়ে যায়। তারাও পথভ্রষ্ট হয়ে তাদের বাবা-মায়ের পথ ধরে। আর সেটা ঠেকাতেই স্পেনের আরানজুয়াজ জেল কর্তৃপক্ষ এই উদ্যোগ নিয়েছে।

কয়েদীদের সন্তানরা যাতে তাদের মা-বাবার সাথে থেকে তাদের সুষ্ঠু মানসিক বিকাশ লাভ করতে পারে, তারা ভবিষতে ভালো নাগরিক হয়ে উঠতে পারে সে প্রত্যাশা থেকেই স্পেনের আরানজুয়াজ জেলে এই অভিনব ‘ফ্যামেলি সেল’ এর ব্যবস্থা করে রেখেছে জেল কর্তৃপক্ষ।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close