এশিয়া জুড়ে

এক আঘাতেই মার্কিন রণতরি ধ্বংসে প্রস্তুত উত্তর কোরিয়া: মাত্র তিন-চারটি বোমাতেই পৃথিবী ধ্বংস করতে পারে উত্তর কোরিয়া

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: কোরিয় উপদ্বীপের দিকে এগিয়ে আসা মার্কিন বিমানবাহী রণতরীকে ডোবানোর জন্য প্রস্তুত উত্তর কোরিয়া, দেশটির রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে এমনটা বলা হচ্ছে।

দং সিনমুন পত্রিকায় বলা হয়েছে, ইউএসএস কার্ল ভিনসন যুদ্ধজাহাজকে মাত্র একটি আঘাতেই ডুবিয়ে দেয়া সম্ভব। কার্ল ভিনসনের নেতৃত্বে একটি নৌবহর এ সপ্তাহেই কোরিয় উপদ্বীপে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কৌশলগত ধৈর্যধারণের সময় ফুরিয়েছে এমন হুশিয়ারি দেয়ার পর এই নৌবহর পাঠানোর নির্দেশ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ায় একটি ব্যর্থ মিসাইল পরীক্ষা এবং বিশাল একটি সামরিক প্যারেড আয়োজনের পর কোরিয়াকে ঘিরে উত্তেজনা আরও বেড়েছে।

ক্ষমতাসীন ওয়ার্কার্স পার্টির মুখপাত্র হিসেবে পরিচিত রদং সিনমুন পত্রিকায় শনিবারের ভাষ্যের সাথে একটি ফিচারও ছাপা হয়, যেখানে দেশটির নেতা কিম জং-উনকে একটি শুকরের খামার পরিদর্শন করতে দেখা যায়।

ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়, আমাদের বিপ্লবী বাহিনী যুক্তরাষ্ট্রের নিউক্লিয়ার জ্বালানী চালিত বিমানবাহী রণতরীকে মাত্র একটি আঘাতেই ডুবিয়ে দিতে সক্ষম। প্রতিবেদনের ভাষ্য অনুযায়ী, একটি নোংরা জন্তুকে আক্রমণের মাধ্যমে উত্তর কোরিয়ার সামরিক শক্তির একটি সত্যিকারের উদাহরণ দেখানো যাবে।

রাষ্ট্রীয় পত্রিকা মিনজু জসনও একই বক্তব্য দিয়েছে। সেখানে এমন হুশিয়ারি দেয়া হয়েছে যে সেনাবাহিনী এমন নির্দয়ভাবে শত্রুর ওপর আঘাত করবে, যে তারা আর জীবিত হতে পারবে না।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন এশীয় দেশগুলো সফরের সময় বলেন, যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার সব দিকই বিবেচনা করছিল। আমরা তাদের রাষ্ট্রীয় মদদে দেয়া সন্ত্রাসবাদের দিকে লক্ষ্য রাখছি এবং পিয়ংইয়ং এর ওপর কীভাবে চাপ প্রয়োগ করা যায় সেটাও দেখছি।

জবাবে রদং সিনমুন বলে: যদি আমাদের মহাশক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানে হয়, তাহলে সেটি শুধু দক্ষিণ কোরিয়ায় মার্কিন সাম্রাজ্যবাদী বাহিনীকেই ধুলিস্যাত করবে না, তা মার্কিন ভূখণ্ডকেও ছাই করে দেবে।

উত্তর কোরিয়া বলে আসছে যে তাদের পারমানবিক কর্মসূচি প্রতিরক্ষামূলক। তবে তারা ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে বহণযোগ্য ছোট আকারের পারমানবিক অস্ত্র তৈরির চেষ্টা করছে। তবে তাদের ক্ষেপণাস্ত্র দূরবর্তী লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে, এমন কোন তথ্য-প্রমাণ এখনও নেই। ভিনসন নৌবহর রোববার ফিলিপিন সাগরে জাপানী নৌবাহিনীর সাথে একটি যৌথ মহড়ায় অংশ নেয়।

মাত্র তিন-চারটি বোমাতেই পৃথিবী ধ্বংস করতে পারে উত্তর কোরিয়া

মাত্র তিন-চারটি পারমাণবিক বোমাতেই পৃথিবী ধ্বংস করতে পারে উত্তর কোরিয়া। নিজেকে উত্তর কোরিয়ার একজন মুখপাত্র দাবি করে আলেজান্দ্রো কাও ডে বেনোস নামের এক ব্যক্তি এই চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন। খবর ইন্ডিপেনডেন্টের।

ডে বেনোস বলেন, কেউ উত্তর কোরিয়াকে স্পর্শও করতে পারবে না। যদি কেউ সেটা করার চেষ্টা করে তবে দেশের লোকজন বন্দুক এবং ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে তা প্রতিহত করবে।

রক্ষণশীল এক নায়কতন্ত্র দেশ উত্তর কোরিয়ার বিশেষ প্রতিনিধি বলে নিজেকে পরিচয় দিয়েছেন ডে বেনোস।

আর্জেন্টিনার ওয়েবসাইট ইনফোবেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডে বেনোস বলেন, উত্তর কোরিয়া ইতোমধ্যেই তাদের পারমাণবিক এবং হাইড্রোজেন বোমাজাতীয় অস্ত্র প্রস্তুত রেখেছে। আমাদের কাছে হাইড্রোজেন বোমাও রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, উত্তর কোরিয়ায় সব সিদ্ধান্ত নেন কিম জং উন। তিনি ছাড়া আর কারও সিদ্ধান্ত নেয়ার কোনো অধিকার নেই।

উত্তর কোরিয়ার বন্দি শিবিরে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছিল হিউমেন ওয়াচ রাইটস। সংস্থাটি জানিয়েছে, এসব বন্দি শিবিরে জোর করে মানুষকে কাজ করতে বাধ্য করা হয়। সেখানকার পরিস্থিতি খুবই বিপজ্জনক। লোকজনকে জীবনের হুমকির মধ্যেই কাজ করতে হয়।

কিন্তু এসব বন্দি শিবির সম্পর্কে ডে বেনোস বলেন, আমরা বিশ্বাস করি এটা শাস্তি নয় বরং পুনর্বাসন। এগুলো অনেকটা মানসিক থেরাপির মতো।

তিনি বলেন, হয়তো যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর কোরিয়ার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। কিন্তু এটা পরিমাণের প্রশ্ন নয়। প্রশ্ন হচ্ছে বিস্ফোরণের ক্ষমতা নিয়ে। একটি হাইড্রোজেন বোমা একটি পারমাণবিক বোমার চেয়ে একশ গুণ বেশি শক্তিশালী।

এ ধরনের তিন-চারটি বোমা দিয়ে পুরো পৃথিবীই ধ্বংস করা সম্ভব বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়ার বার বার পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় কোরীয় দ্বীপে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। এমন পরিস্থিতিতে দক্ষিণ কোরিয়ার পাশে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ওয়াশিংটন এবং পিয়ংইয়ংয়ের মধ্যে চলমান উত্তেজনার মধ্যেই এ ধরনের মন্তব্য করলেন ডে বেনোস।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close