ভারত জুড়ে

ভারতের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন ধ্রুপদি

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: আগামী ২৫ শে জুলাই শেষ হচ্ছে ভারতের প্রেসিডেন্ট প্রণব মুখার্জীর ক্ষমতার মেয়াদ। তার আগেই একজন নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করতে হবে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারকে। এক্ষেত্রে কে হবেন নতুন প্রেসিডেন্ট তা নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই।

তবে অনলাইন জি নিউজ জানিয়েছে, বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার চমক সৃষ্টি করতে পারে। তারা এবার প্রেসিডেন্ট পদে একজন উপজাতি সম্প্রদায়ের প্রার্থীকে মনোনীত করতে পারে। যদি সেটাই হয় এবং ওই প্রার্থী নির্বাচিত হন তাহলে তিনিই হবেন ভারতের ইতিহাসে প্রথম কোনো উপজাতি প্রেসিডেন্ট।

মিডিয়ায় আলোচনা ছড়িয়ে পড়েছে যে, ঝাড়খন্ডের গভর্নর ধ্রুপদি মুরমু হতে পারেন অন্যতম প্রার্থী। তার কথা এনডিএ সরকার বিশেষভাবে বিবেচনা করছে। উল্লেখ্য ধ্রুপদি মুরমু উপজাতি সম্প্রদায়ের। এরই মধ্যে তিনি ঝাড়খর ইতিহাস তৈরি করেছেন। তিনিই সেখানকার প্রথম উপজাতি নারী গভর্নর।

২০১৫ সালের ১৮ই মে তিনি এ দায়িত্বে আসেন। ওড়িশা থেকে তিনি বিজেপির টিকিটে দু’বার এমএলএ নির্বাচিত হয়েছেন। রাজ্যের ময়ূরভঞ্জ জেলা শাখা বিজেপির প্রধানও ছিলেন তিনি। বিজু জনতা দল ও বিজেপি যখন ওড়িশায় জোট সরকার গঠন করেছিল মুখ্যমন্ত্রী নবীন পাটনায়েকের অধীনে সেই সরকারের একজন মন্ত্রী হয়েছিলেন ধ্রুপদি।

উল্লেখ্য, ধ্রুপদি মুরমু একজন কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার মধ্য দিয়ে তার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শুরু করেন ১৯৯৭ সালে। তবে এবার প্রেসিডেন্ট পদে যাদের নাম উচ্চারিত হচ্ছে তার মধ্যে তার নামটিই বেশিবার আসছে।

অন্য যাদের নাম আছে তারা হলেন বিজেপির বর্ষীয়ান রাজনীতিক এলকে আদভানি, লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী এম ভেঙ্কাইয়া নাইডু।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close