সাজসজ্জা

শাড়ি ছাড়া অধরা বাঙালি রমণীর সাজ

রমণী ডেস্ক: আমাদের দেশে এক সময় অবিবাহিত ও বিবাহিত মেয়েদের পাথর্ক্য নির্ণয়ের সহজ মাধ্যম ছিল শাড়ি। অবিবাহিত মেয়েরা বিভিন্ন উৎসব অনুষ্ঠানে শখ করে শাড়ি পরে যেন বিয়ের ভাবনায় নিজেকে ও আপন কাউকে বিয়ের কথা মনে করিয়ে দেওয়া মনে হতো। সেসময় বিয়ের পর মেয়েরা সালোয়ার কামিজ পোশাক শাড়িতে অভ্যস্ত হয়ে যেত , শখের বসেও বিবাহিত নারীদের সালোয়ার কামিজ পরতে দেখা যেতনা।

খনও শাড়ি শব্দটি উচ্চারণ মাত্রই বাঙালি রমণীর মুখ উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। যে কোনো উৎসবে শাড়ি ছাড়া নারীর সাজগোজ যেন অপূর্ণই থেকে যায়। বাঙালি নারীর জীবনে শাড়ি বিশেষ স্থান দখল করে আছে।

পাশ্চাত্যের ছোঁয়া থাকলেও এদেশি নারীদের পছন্দের তালিকায় এখনো শীর্ষে রয়েছে শাড়িই। তাই ঈদের মতো বর্ণিল ও আনন্দময় উৎসব নারীরা নতুন শাড়ি ছাড়া কল্পনাই করতে পারেন না। ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় এবার ঈদেও নারীদের টান শাড়ির দিকে বেশি বলেই মনে করছেন বিক্রেতারা।

অনেক স্বামী হয়ত নিজের বউকে কবে শাড়ি পরা কবে দেখেছে ভুলে গেছে। এরকম বছর এক দুয়েক আগে এক ঈদে প্রেম করে বিয়ে করা বউয়ের পছন্দ ও চাহিদামত সকল ফরমায়েশ পূরণ করে,স্বামী তাঁর পছন্দে বউয়ের জন্য কিনে এনেছিল নীল শাড়ি। প্রেমিক স্বামী ঈদের নামাজ পরে বাড়ী এসে আশা করেছিল প্রেয়সী পরবে শাড়ি কিছুটা আশাহত হয়ে ভেবেছিল দুপুরে যাব যখন শ্বশুর বাড়ি তখন নিশ্চয় বউ পরবে নীল শাড়ি ।

কিন্তু অভ্যাসগত কারনে ও শাড়ি সাজে নারী হতে মেয়েদের একটু সময়ও লাগে তাই তখনও শাড়ি পরেনি প্রেয়সী বউ। বউকে শাড়ি পরা এতটাই মর্মাহত হয়েছিল যে, তাৎক্ষনিক কিছু বলতেও ঈদের বউকে দেওয়া নীল শাড়ী যেন নীল কষ্ট হয়ে বিকে বিঁধেছিল দম বন্ধ হওয়া বেদনা কষ্ট নিয়ে বউকে তাঁর বাপের বাড়ি গেটে নামিয়ে দিয়ে বলেছিল, প্রেমিক স্বামী তাঁর প্রেয়সী বউকে আমি যাবনা শ্বশুর বাড়ি, আর তোমার সঙ্গে আমার আড়ি! কেন আজ পরনি তুমি শাড়ি।

গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন শপিং মল ও শাড়ির মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে শাড়ির প্রতি নারীর দুর্বলতার চিত্র। দেখলে মনে হবে যেন, মার্কেটগুলোতে শাড়ির দোকানে নারীর মেলা বসেছে। গাউছিয়া, চাঁদনী চক, নিউ মার্কেট, মৌচাক মার্কেট এবং রাপা প্লাজা, মেট্রো শপিং মল, প্লাযায় ঘুরে দেখা গেছে, দোকানিরা কটন, সফট কটন, এন্ডি কটন, সিল্ক, হাফ সিল্ক, এন্ডি সিল্ক, মসলিন, জামদানি, কাতান, কাঞ্জিবারাম ও গাদোয়াল শাড়ির পসরা সাজিয়েছেন।

বিক্রেতারা জানান, বাজারে ভারতীয় শাড়ির রমরমা বেচাবিক্রি হলেও দেশি শাড়ির প্রতি ক্রেতাদের আগ্রহ একটুও কমেনি, বরং দিন দিন এ আগ্রহ বাড়ছে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close