যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

কাতারের সঙ্গে আমরা একটি ভালো সম্পর্কের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি: ট্রাম্প

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সন্ত্রাসবাদে অর্থ সরবরাহ বন্ধ করার বিষয়ে এরই মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও কাতার।

কিন্তু চুক্তিতে সই করা সৌদি আরব ও তার মিত্র দেশগুলো বলছে, যুক্তরাষ্ট্র ও কাতারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হলেও কাতারকে করা বয়কট তারা জারি রাখবে। কারণ চুক্তি স্বাক্ষর হলেও তারা কাতারের ওপর পূর্ণ বিশ্বাস রাখতে পারছেন না।

এদিকে পারস্য উপসাগরীয় সংকট সমাধানে কাতারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র সুসম্পর্ক বজায় রাখবে বলে এক ভাষণে জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। গেল বুধবার সিবিএন নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাতকালে এমন ঘোষণা দেন মিস্টার ট্রাম্প।

তিনি বলেছেন, ‘সামরিক ভিত্তি নিয়ে আমাদের মধ্যে কোনও সমস্যা হবে না। আমরা কাতারের সঙ্গে একটি ভালো সম্পর্কের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।’

কাতারের উপর থেকে মার্কিন সামরিক ঘাঁটি সরিয়ে নেয়া হবে বলেও ওই সাক্ষাতকারে জানান ট্রাম্প।

ট্রাম্প আরও বলেন, ‘আমি সৌদি আরবকে বলেছি, তারা কখনওই যেন সন্ত্রাসবাদীদের অর্থায়ন না করে। বিষয়টি নিয়ে কাতারের সঙ্গেও কথা হচ্ছে। তারা আমার কথা শুনছে। আমি বলেছি, সন্ত্রাসবাদকে অর্থায়ন করে কোনও দেশ উন্নতির পথে এগোতে পারে না।’

প্রসঙ্গত, পারস্য উপসাগরীয় সংকট সমাধানের ক্ষেত্রে কাতারকে বিশ্বাস করতে পারছে না সৌদি আরব ও তার মিত্ররা। সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, মিশর ও বাহরাইন প্রতিবেশী দেশ কাতারকে যেসব নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে এর একটা যথার্থ কূটনৈতিক সমাধান খুঁজতে- চলছে নানামুখী প্রচেষ্টা।

উপসাগরীয় সংকট সমাধানে এখন মধ্যপ্রাচ্য সফরে রয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন। টিলারসনের সাথে উপসাগরীয় অঞ্চলের মন্ত্রীদের বৈঠক কোনও ফলাফল ছাড়াই শেষ হওয়ার পর বৃহস্পতিবার আবারও কাতারে সফরে যাবেন তিনি।

কাতারের ওপর সৌদি আরব ও তার মিত্রদের নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর সৃষ্ট পরিস্থিতি অবসানের উপায় খুঁজে বের করাই মি. টিলারসনের মূল লক্ষ্য।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close