আরববিশ্ব জুড়ে

সাধারন মানুষকে নির্যাতনের দায়ে গ্রেপ্তার সৌদি প্রিন্স

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সৌদি বাদশাহ সালমানের আদেশে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দেশটির তরুন এক প্রিন্সকে।

সৌদি প্রিন্স সউদ বিন আব্দুল আজিজ বিন মুসায়েদ বিন সউদ বিন আব্দুল আজিজ সাধারন মানুষকে নির্যাতন করছেন এমন ভিডিওচিত্র অনলাইনে ছড়িয়ে পরার পর তাকে গ্রপ্তার করার নির্দেশ দেন সৌদি বাদশা।

ছড়িয়ে পরা এক ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, তিনি একজনের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছেন ও অপর একজনের দিকে একটি বন্দুক ধরে আছেন। এ খবর দিয়েছে দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট।

খবরে বলা হয়, বুধবার ওই প্রিন্সকে গ্রেপ্তার ও জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ দেন বাদশাহ সালমান। তবে ইউটিউব, টুইটার ও অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমে তার নির্যাতন করার ভিডিওচিত্রগুলো ছড়িয়ে পরে আগের দিনই। ছড়িয়ে পরা একটি ভিডিওচিত্র দেখা হয়েছে ৭ লাখ ৬০ হাজারেরও বেশিবার। ভিডিওচিত্রটিতে দেখা যায় জনি ওয়াকার রেড লেবেল হুইস্কির ১৮ টি বোতল একটি টেবিলে রাখা আছে।

উল্লেখ্য, সৌদি আরবে এলকোহল বিক্রি ও পান করা নিষিদ্ধ। অপর এক ভিডিওচিত্রে দেখা যায়, গ্রেপ্তারকৃত প্রিন্স চেয়ারে বসা এক ব্যক্তিকে ঘুষি ও থাপ্পড় মারছেন। এই ভিডিওচিত্রগুলো সৌদি আরবে ‘প্রিন্স ট্রান্সগ্রেসেস অন সিটেজেন’ হ্যাশট্যাগসহ ছড়িয়ে যায়।

দেশটির রাষ্ট্রপরিচালিত টিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ভিডিওচিত্রে আসা ওই ঘটনাগুলো নিয়ে একটি পরিপূর্ণ তদন্ত করার এবং ওই প্রিন্স ও ভিডিওচিত্রগুলোতে তাকে সহযোগীতা করতে দেখা গেছে এমন সবাইকে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দিয়েছেন সৌদি বাদশা।

তিনি নির্দেশ দিয়েছেন যে, এই ঘটনায় জড়িত কোন ব্যক্তি যেন ইসলামিক শারিয়া আইন মোতাবেক আদালতের রায় প্রকাশের আগে মুক্তি না পায়।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close