জাতীয়

দেশে প্রথমবারের মতো চালু হলো টাচ অ্যান্ড গো সিস্টেমে টোল আদায়ের পদ্ধতি

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: এক সময় বাংলাদেশের পরিচিতি ছিল প্রাকৃতিক দুর্যোগপূর্ণ অর্ধাহার অনাহার কবলিত বিধ্বস্ত অর্থনৈতিক কাঠামোর একটি দরিদ্র দেশ হিসাবে। এখন বাংলাদেশের বর্তমান সাফল্য দেখে বিশ্ববাসী বিস্মিত হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারের চলমান উন্নয়ন প্রক্রিয়ার ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশে প্রথমবারের মত সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে বিদ্যমান টোল আদায় পদ্ধতির পাশাপাশি দ্রুতগতিতে টোল আদায়ের জন্য টোল প্লাজায় চালু হলো ডিজিটাল টাচ অ্যান্ড গো প্রযুক্তি।

আজ শনিবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মেঘনা টোল প্লাজায় এই পদ্ধতিটির উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এই উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে দেশে প্রথমবারের মতো চালু হলো টাচ অ্যান্ড গো সিস্টেমে টোল আদায়ের পদ্ধতি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, দেশে এই প্রথমবারের মতো টাচ অ্যান্ড গো পদ্ধতিতে টোল আদায়ের সিস্টেম চালু করা হয়েছে। এই পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে মহাসড়কে যানজটসহ বাড়তি ঝামেলা ও সব ধরণের জটিলতার সমাধান হবে।

এর আগে জানানো হয় ডিজিটাল কার্ড ‘টাচ অ্যান্ড গো’ মেশিনে স্পর্শ করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে টোল পরিশোধ হয়ে যাবে। এতে সময় কম লাগার পাশাপাশি টোল ব্যবস্থা আরো স্বচ্ছ ও শতভাগ টোল আদায় নিশ্চিত হবে।

এক্ষেত্রে আগে থেকেই কার্ড বিক্রির ব্যাবস্থা করবে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। থাকবে কার্ড রিচার্জের ব্যবস্থাও।

তবে শতভাগ গাড়ি স্মার্টকার্ড ব্যবহার নাও থাকতে পারে। তাই বিদ্যমান ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে টোল আদায় ব্যবস্থাও বহাল রাখা হবে। এজন্য দুই ধরনের পৃথক টোল বুথ থাকবে।

এসময় বরিশালের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) ব্যাপারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আইনজীবী ওবায়েদ উল্লাহ সাজুকে কারন দর্শানোর জন্য ১৫ দিনের সময় দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে তিনি উপযুক্ত জবাব দিতে ব্যর্থ হলে তাকে চূড়ান্তভাবে বহিস্কার করা হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন বিভাগের সচিব এম এ এস ছিদ্দিক, সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান, হাইওয়ে পুলিশের ডিআইজি আতিকুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ১৮ ই মার্চ, ১৯৯৭ তারিখে মালয়েশিয়ার Jalan Pahang Toll Plazaয় প্রথম ‘টাচ অ্যান্ড গো’ সিস্টেম ইনস্টল ও ব্যবহার করা হয়েছিল। নতুন এই প্রযুক্তিটি প্রথম যখন চালু করা হয়েছিল, তখন ‘টাচ অ্যান্ড গো’ কার্ড ব্যবহারে উৎসাহিত করার জন্য টোলের সাধারন চার্জ থেকে ১০% ডিসকাউন্ট সুবিধা পেয়েছিল।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close