দুনিয়া জুড়ে

লন্ডন- প্যারিস-বার্সেলোনা: তিন জঙ্গি হামলাতেই এই যুবতী হিরোইন

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: একেই বোধহয় বলে রাখে আল্লাহ্ মারে কে না হলে এমনটা কিভাবে সম্ভব। গেল কয়েকমাসে তিনি তিন বার বেঁচে ফিরে এসেছেন জঙ্গি হানার মুখ থেকে। কো।

প্রথমে লন্ডন, তারপর প্যারিস, এবার বার্সেলোনা। পর পর তিনবার জঙ্গি হামলা থেকে ভাগ্যের জোরে বাঁচলেন এই যুবতী।

লন্ডন ব্রিজে তিন আততায়ী যখন ছুরি নিয়ে হামলা চালায়, তখন জুলিয়া আটকে পড়েছিলেন সেখানে। এরপর প্যারিসে জঙ্গি হামলার সময়ও সেখানে আটকে পড়েছিলেন তিনি।

শেষমেশ স্পেনের বার্সেলোনায় ভ্যান হামলার সময় একটি দোকানের মধ্যে আটকে পড়েন তিনি।

বার্সেলোনার এই জঙ্গি হামলায় মারা গেছে ১৩ জন , আহত হয়েছে বহু মানুষ। তার শরীরের খুব কাছ দিয়ে চলে গেল ঘাতক গাড়ি। কিন্তু জুলিয়া মোনাকোর কিছুই হল না।

আবারও তিনি বাঁচলেন অল্পের জন্যে। গল্প হলেও সত্যি। অস্ট্রেলিয়ার এই যুবতীর গল্পটা এমনই। অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নের বাসিন্দা মোনাকো। ঘুরে বেড়ান গোটা দুনিয়া।

বৃহস্পতিবার বার্সেলোনার লস রামলাস অ্যাভিনিউয়ে আইএস জঙ্গিরা যখন একটি সাদা ভ্যান নিয়ে রাস্তা ভর্তি মানুষের ওপর এগিয়ে যেতে থাকে, তখন সেখানকারই একটি মার্কেটে কেনাকাটা করছিলেন এই অস্ট্রেলীয় মহিলা।

চোখের সামনে ১৩ জনকে ওভাবে মরতে দেখে, আতঙ্কে শিউরে উঠেছেন জুলিয়া। তাঁর কথায়, বীভত্স অভিজ্ঞতা মূহূর্তের মধ্যে নিজেকে বাঁচাতে কীভাবে ছুট লাগিয়েছেন, জানিয়েছেন তা ও।

মোনাকো বলেছেন, মুহূ্র্তের মধ্যে চারদিকে আর্ত চিত্কার আর রক্ত। প্রাণভয়ে যে যেদিকে পারছে ছুটছে। এরমধ্যেই আমি কোনওরকমে একটা দোকানের মধ্যে ঢুকে পড়ি।

দোকানের টেবিলের কাপড়ের আড়ালে লুকিয়ে ছিলাম আমরা কয়েকজন। প্রাণে বেঁচে যাই।

পর পর তিনবার জঙ্গি হামলার আতঙ্ক। তবে, সেসব কাটিয়ে ফের স্বাভাবিক জীবনের ছন্দে ফিরছেন বলেও জানিয়েছেন মোনাকো।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close