লন্ডন থেকে

মুসলিম পরিবারের কাছে ক্রিশ্চিয়ান মেয়ে দত্তক নিয়ে ব্যাপক সমালোচনায় টাওয়ার হ্যামলেটস চিলডেন সার্ভিস

শীর্ষবিন্দু নিউজ: এক ক্রিশ্চিয়ান মেয়েকে তার পরিবারের ইচ্ছার বিরুদ্ধে মুসলিম পরিবারের কাছে দত্তক দেওয়ার কারনে ব্যাপক সমালোচনার মুখে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা ও বিতর্কের মুখে টাওয়ার হ্যামলেটস চিলডেন সার্ভিস।

সংবাদ মাধ্যমে বিষয়টি উঠে আসার পর কাউন্সিলের বিরোধীগ্রুপও এর ব্যাপক সমালোচনা করেছে। তবে তারা মুসলিম কেয়ারার কাছে ভিন্নধর্মী শিশু ফস্টারীং বা দত্তক দেওয়ার বিরুদ্ধে সমালোচনা করেননি। তাদের মতে চাইল্ড কেয়ারিংয়ের সঙ্গে ধর্মীয় কোন বাঁধা নিষেধ নেই।

কিন্তু ফস্টার কেয়ারে কোন দত্তক শিশুর ধর্মীয় সংস্কৃতি বা বিশ্বাসের উপর জোর খাটাতে পারে না বলে সমালোচনা করেছেন টোরি কাউন্সিলর এন্ড্রো উড। এর আগে গত এপ্রিলে চাইল্ড কেয়ার সার্ভিসের দুর্দশার অভিযোগে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পরেছিল লেবারের নির্বাহী মেয়র জন বিগসের কেবিনেট। তখন লিড মেম্বার ছিলেন সাবেক ডেপুটি মেয়র রেচাল স্যান্ডার্স।

বর্তমান ক্ষমতাসীন কনজাভেটিভ পার্টির কাউন্সিলর এন্ড্রো দাবী করেন, ৫ বছরের ক্রিশ্চিয়ান শিশুকে তার মুসলিম ফস্টার কেয়ারার আরবি শেখানোর চেস্টা করেছে। শিশুটির গলা থেকে ক্রস চিহ্নিত নেকলেসটি সরিয়ে নিয়ে তাকে বেহেস্তে যাবার তালিম দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেন কাউন্সিলর এন্ড্রো।

উল্লেখ্য, পরিবারের অমতে বা অনিচ্ছা থাকার পরেও ৫ মাস বয়সী ক্রিশ্চিয়ান মেয়ে শিশুকে দুটি মুসলিম পরিবারের কাছে প্রায় ৬ মাস দত্তক থাকতে হয়েছে। নিকাব ব্যবহারকারী এক ফস্টার কেয়ারার ছিলেন ওই ক্রিশ্চিয়ান শিশুর। এ নিয়ে মুলধারার মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close