দুনিয়া জুড়ে

উত্তর কোরিয়া সঙ্কটের মধ্যেই চীনে ব্রিকস সম্মেলন শুরু

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ক্ষেপণাস্ত্র (হাইড্রোজেন বোমা) পরীক্ষার পর তীব্র উত্তেজনার মধ্যেই সোমবার শুরু হয়েছে ৫ জাতির শীর্ষ সম্মেলন ব্রিকস।

সোমবার বার্ষিক এ সম্মেলন উদ্বোধন করেন চীনের প্রেসিডেন্ট সি জিনপিং। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। ব্রিকসভুক্ত দেশগুলো হলো- ব্রাজিল, রাশিয়া, ইন্ডিয়া, চায়না ও সাউথ আফ্রিকা।

এ দেশগুলোর ইংরেজি নামের প্রথম অক্ষর নিয়ে নামকরণ হয়েছে ব্রিকস। সংগঠনটির নেতারা এবার মিলিত হয়েছেন চীনের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর সিয়ামেনে। সেখানে তারা যে সম্মেলনে মিলিত হয়েছেন তার ওপর ছায়াপাত করেছে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক পরীক্ষা। রোববার তারা পরীক্ষা চালিয়েছে হাইড্রোজেন বোমা।

বলা হয়, এটি সবচেয়ে শক্তিশালী এবং দূরপাল্লার। উত্তর কোরিয়ার এই পারমাণবিক পরীক্ষা চীনের মুখের ওপর চপেটাঘাতের মতো। কারণ, চীন তাদের দীর্ঘদিনের মিত্র। ওই পরীক্ষার প্রেক্ষিতে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিন্দা জানিয়েছে।

ফলে ব্রিকস সম্মেলনকে ছাপিয়ে উঠেছে উত্তর কোরিয়ার ওই পারমাণবিক পরীক্ষা। এই সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট মাইকেল তেমের ও দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকব জুমা।

কিন্তু চীনের প্রেসিডেন্ট সি জিনপিং যখন ব্রিকস সম্মেলনের মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে তাদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করছেন, ঠিক তার পূর্ব মুহূর্তটিকে বেছে নিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন। অপ্রত্যাশিতভাবে তিনি ওই অস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছেন। মে মাসে তারা একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালান।

এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন সি জিনপিং। ওই সময়ও তিনি বৈশ্বিক বাণিজ্য ও অবকাঠামো উন্নয়ন বিষয়ক একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনের আক্বান করেছিলেন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, উত্তর কোরিয়ার এমন প্ররোচণার উদ্দেশ্য হতে পারে চীনের ওপর চাপ সৃষ্টি করা, যাতে ওয়াশিংটন সরাসরি পিয়ংইয়ংয়ের সঙ্গে আলোচনায় বসে।

তবে এমন আলোচনা বা সমাধান কতদূর তা নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। এর আগে যখন উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালায় তখন ট্রাম্প হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। বলেছিলেন, আগুনে জবাব দেয়া হবে তাদের। ওই সময়ে তিনি উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেয়ার সম্ভাব্য পথ উন্মুক্ত বলে মন্তব্য করেছিলেন।

তবে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে উত্তেজনা কূটনৈতিকভাবে সমাধান করার জন্য চাপ দিচ্ছে রাশিয়া ও চীন। উত্তর কোরিয়ার হাইড্রোজেন বোমা পরীক্ষার নিন্দা জানিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন।

তিনি এ নিয়ে ফোন করেছিলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে’কে। তবে তিনি পুনরুল্লেখ করে বলেছেন, এই সঙ্কট সমাধানের একমাত্র পথ হলো রাজনৈতিক ও কূটনৈতিক পন্থা অবলম্বন।

এমনই অবস্থার মধ্যে সোমবার ব্রিকস সম্মেলন উদ্বোধন করেছেন সি জিনপিং। তবে তিনি বক্তব্য দেয়ার সময় উত্তর কোরিয়া সঙ্কটের বিষয়টি এড়িয়ে গেছেন।

ব্রিকস সম্মেলন থেকে উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ইস্যুতে যৌথ কোনো ঘোষণা বা বিবৃতি দেয়া হবে কিনা তা স্পষ্ট নয়। মঙ্গলবার সি জিনপিং ও ভ্লাদিমির পুতিনের সংবাদ সম্মেলন করার কথা রয়েছে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close