লন্ডন থেকে

টাওয়ার হ্যামলেটসে ওয়াটস গ্রোভ ডেভেলাপমেন্ট এর উদ্বোধন করলেন লন্ডন মেয়র সাদিক খান

শীর্ষবিন্দু নিউজ: টাওয়ার হ্যামলেটসে সামর্থের মধ্যে বাড়ী পেতে বারার বাসিন্দাদের জন্য নতুন ওয়াটস গ্রোভ ডেভেলাপমেন্ট নামক হাউজিং বরাদ্দ দিতে বুধবার উদ্বোধন করে কাউন্সিল। আর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন লন্ডন মেয়র সাদিক খান।

৬ই সেপ্টেম্বর টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাহী মেয়র জন বিগসকে সাথে নিয়ে কেক কেটে এর উদ্বোধন করেন লন্ডন মেয়র সাদিক খান। নির্মিত ঘরগুলো হচ্ছে টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস কতৃক প্রতিশ্রুতি দেয়া ১ হাজার কাউন্সিল বাড়ী নির্মানের অংশ বিশেষ। বো কমন এলাকার এই ওয়াটস গ্রোভ ডেভেলাপমেন্টটিতে ওয়েটিং লিস্ট থেকে বিভিন্ন ক্যাটাগরির মোট ১৪৭টি পরিবারকে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

ওয়াটস গ্রোভ ডেভেলাপমেন্টে বিভিন্ন সাইজের ফ্ল্যাটের ৪টি নতুন ব্লক, ১৩টি ট্যারেস হাউস এবং প্রতিবন্ধিদের জন্য ১৩টি বাড়ী নির্মান করা হয়েছে। নির্মিত ফ্ল্যাটগুলো ফ্যামেলী সাইজের অর্থাৎ ৪, ৩ এবং ২ বেড রুমের। এছাড়া ১০% বাড়ীতে হুইল চেয়ার প্রবেশের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের ম্যানেজিং এজেন্টস টাওয়ার হ্যামলেটস হোমস বাড়ীগুলো তত্ত্বাবধান করবে।

লন্ডন মেয়র বলেন, ১ হাজার বাড়ী বানালেই টাওয়ার হ্যামলেটসের হাউজিং সমস্যার সামধান হবে না। আর এ জন্য অন্যান্য যেসব সোশাল হাউজিং কোম্পানি রয়েছে তারাও যাতে সামর্থ্যরে মধ্যে বাড়ী বানায় এজন্য তাদের সাথে আমি কাজ করে যাচ্ছি।

মেয়র বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটসের হাউজিং সমস্যাকে আমি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে থাকি এবং এর সাম্প্রতিক অগ্রগতিতে আমি গর্বিত। এছাড়া সামর্থের মধ্যে ঘরবাড়ী বানানোর ক্ষেত্রে সাফল্যের পাশাপাশি বাড়ী ভাড়াও আমরা কমিয়েছি যা একজন বাসিন্দার বছরে সর্বোচ্চ ৬ হাজার পাউন্ড সাশ্রয় করবে। এর বাইরে প্রাইভেট রেন্টার্স চার্টার আমাদের আরেকটি অগ্রগতি হিসাবে উল্ল্যেখযোগ্য হয়ে থাকবে।

সাদিক খান বলেন, সাধারন বাসিন্দাদের সামর্থ্যরে মধ্যে ভাড়ার জন্য নির্মিত এই বাড়ীগুলো মাইলস্টোন হিসাবে চিন্নিত হবে। বাড়ীগুলো নির্মাণের জন্য তিনি মেয়র জন বিগসকে বিশেষ ধন্যবাদ জানান এবং টাওয়ার হ্যামলেটসের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখার জন্য অনুরুধ করেন। কেক কেটে উদ্বোধনের আগে সাদিক খান ওয়াটস গ্রোভ প্রজেক্টে বাড়ী প্রাপ্তদের সাথে কথা বলেন এবং কয়েকটি ফ্ল্যাট ঘুরে ঘুরে দেখেন।

টাওয়ার হ্যামলেটস নির্বাহী মেয়র জন বিগস তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আমি আমার প্রতিশ্রুতি মোতাবেক সাধারন বাসিন্দাদের সামর্থ্যরে মধ্যে ১ হাজার কাউন্সিল বাড়ী নির্মাণে অব্যাহতভাবে কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। ওয়াটসগ্রোভ প্রজেক্ট এরই অংশবিশেষ। অনুরুপ আরো কয়েকটি প্রজেক্ট পাইপলাইনে রয়েছে।

জন বিগস বলেন, আমার প্রধান লক্ষ্যই হচ্ছে নির্মিত বাড়ীর ভাড়া যাতে দরিদ্র বাসিন্দাদের সামর্থের মধ্যে থাকে। বাড়ী বানানোর পর সাধারন বাসিন্দারাই যদি তাতে থাকতে না পারেন তাহলে প্রকৃত সমস্যার সমাধান হবে না। তিনি বলেন, সিটি হলের পরিসংখ্যান মোতাবেক সামর্থের মধ্যে বাড়ী বানানোর ক্ষেত্রে টাওয়ার হ্যামলেটস লন্ডনের মধ্যে শীর্ষ স্থান দখল করেছে। আমরা এই সেক্টরে আশাতীত সাফল্য অর্জন করেছি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close