এশিয়া জুড়ে

দুর্নীতির দায়ে ইংলাকের ৫ বছরের জেলদন্ড

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইংলাক শিনাওয়াত্রাকে ৫ বছরের জেল দিয়েছে থাইল্যান্ডের আদালত। কৃষকের কাছ থেকে ভর্তুকি দিয়ে চাল কেনায় দুর্নীতির অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে এ রায় দেয়া হয়েছে। গত মাসে দেশ ছেড়ে যাওয়ায় রায় ঘোষণার সময় আদালতে ছিলেন না ইংলাক শিনাওয়াত্রা।

এর আগে গত ২৫ শে আগস্ট থাইল্যান্ডের সুপ্রিম কোর্টে মামলায় হাজিরা দেয়ার কথা ছিল তার এবং ওইদিনই রায় ঘোষণার কথা ছিল। এ জন্য তার কয়েক হাজার নেতাকর্মী, সমর্থক ওইদিন আদালতের বাইরে সমবেত হয়েছিলেন। কিন্তু এক পর্যায়ে শোনা যায় ইংলাক দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন।

প্রথমে বলা হয়, তিনি দুবাই চলে গিয়েছেন। পরে বলা হয়, গিয়েছেন সিঙ্গাপুরে। তারও পরে দলীয় এক নির্ভরযোগ্য সূত্র বলেন, ইংলাক কম্বোডিয়ায় হয়ে সিঙ্গাপুরে গিয়েছেন। সেখান থেকে দুবাই গিয়েছেন তার ভাই, সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন শিনাওয়াত্রার কাছে। ইংলাক ২৫ শে আগস্ট আদালতে হাজির না হওয়ায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

উল্লেখ্য, থাইল্যান্ডে প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতায় আসার পর ২০১১ সালে ইংলাক চাল বা ধান কেনা কর্মসুচি হাতে নেন। এতে ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। বলা হয়, এ কর্মসূচিতে দেখভাল করার যে দায়িত্ব ছিল ইংলাকের ওপর তিনি তা করেন নি। তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন।

তার সমালোচকরা বলেন, ধান কেনার মাধ্যমে গ্রাম পর্যায়ের কৃষকের হাতে জনগণের অর্থ তুলে দিয়ে তিনি ভোট ব্যাংক গড়ে তুলছেন। এর মাধ্যমে নষ্ট করা হয়েছে বিপুল অর্থ। জবাবে ইংলাক বলেছিলেন, কৃষকরা এবং দেশ যাতে সুবিধা পায় সে জন্য তিনি এ কর্মসূচি হাতে নিয়েছিলেন। কিন্তু সমালোচকরা বলেছেন, এতে কোটি কোটি ডলার নষ্ট হয়েছে এবং এ থেকে তিনি রাজনৈতিক সুবিধা নিয়েছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close