দুনিয়া জুড়ে

যুক্তরাজ্যে আশ্রয় চাচ্ছেন ইংলাক সিনাওয়াত্রা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: চালের ভুর্তকি প্রকল্পে অবহেলা এবং দুর্নীতির অভিযোগে গত বুধবার থাইল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইংলাক সিনাওয়াত্রাকে পাঁচ বছর কারাদন্ড দেয় দেশটির আদালত। অবশ্য তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

Thai former PM Yingluck gets 5 year jail term for negligenceতিনি এখন দেশ থেকে পলাতক। বর্তমানে দুবাইয়ে আছেন তার ভাই সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার কাছে। এর আগে ২০১৪ সালে ইংলাককে ক্ষমাতচ্যূত করা হয়।

তৎকালীন সেনাপ্রধান প্রেউথ চান ওচার নেতৃত্বে তাকে অপসারণ করা হয়। বর্তমানে দেশটির শাসন ক্ষমতার ভার তার হাতে।

তিনি বলেছেন, ইংলাককে তিনি যেভাবেই পারেন দেশে ফিরিয়ে আনবেন। দেশের দন্ডবিধি অনুযায়ী বিচার করবেন।

অন্যদিকে ইংলাকের দল থেকে জানানো হয়েছে, তাদের নেত্রী চক্রান্তের শিকার। তার বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগই ভিত্তিহীন। তিনি চেয়েছিলেন কৃষকদের সহযোগিতা করতে। দায়িত্বে অবহেলার কোনো অভিপ্রায় তার ছিল না।

তিনি তা করেনওনি। যা হয়েছে নানারকম বিশৃঙ্খলার মধ্যেই হয়েছে। সেনাবাহিনী তার কাঁধে মিথ্যা দোষ চাপিয়ে ক্ষমতা দখল করেছে।

ইংলাকের দল ফিউ থাই পার্টি থেকে জানানো হয়েছে, তাদের নেত্রী এখন যুক্তরাজ্যে রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করছেন। তিনি যতো শীঘ্র পারেন দেশে ফিরে আসবেন।

জনগণকে এক করবেন এবং সেনাবাহিনীর হাত থেকে ক্ষমতা উদ্ধার করবেন। ইংলাকও জানিয়েছেন, দেশ ছেড়ে পালানোর কোনো ইচ্ছা তার কোনোদিন ছিল না। এখনও নেই।

তিনি অবশ্যই যথাসময়ে দেশে ফিরে আসবেন। ইংলাককে যুক্তরাজ্যে আশ্রয় দিবে কি-না এ নিয়ে সিএনএন যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র দপ্তরে যোগাযোগ করলে তারা এখনই এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানায়। সিএনএন

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close