আরববিশ্ব জুড়ে

আটক সৌদি প্রিন্সদের নির্যাতনে মার্কিন নাগরিক ভাড়া

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সৌদি আরবে আটক প্রিন্সদের ওপর নির্যাতনকারীরা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক।

বর্তমান ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমান যুক্তরাষ্ট্রের কুখ্যাত সামরিক ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ‘ব্ল্যাকওয়াটার’ থেকে এ নির্যাতনকারীদের ভাড়া করে এনেছেন।

যুক্তরাজ্যের জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম ডেইলি মেইল সৌদি আরবের একটি সূত্রের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার এ খবর জানিয়েছে।

মেইলের খবরে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের ধনকুবের আল-ওয়ালিদ বিন তালালকে নির্যাতনের সময় পা ওপরের দিকে দিয়ে বেধে পেটানো হয়েছে। এ কাজ করেছে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভাড়া করা বেসরকারি নিরাপত্তা ঠিকাদাররা।

পত্রিকাটি বলছে, সৌদি প্রিন্সদের আটকের পর তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে নেতৃত্ব দিয়ছে ‘ব্লাকওয়াটার’ থেকে ভাড়া করা লোকজন।

ব্লাকওয়াটারের নাম পরিবর্তন করে বর্তমানে রাখা হয়েছে ‘একাডেমি’। তবে একাডেমি সৌদি আরবে লোক ভাড়া দেয়ার কথা অস্বীকার করেছে।

সৌদি প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশে অন্য প্রিন্সদের আটকের পরপরই যুক্তরাষ্ট্র থেকে ‘ব্লাকওয়াটার’ এর লোকজনকে ভাড়া করে সৌদি আরব আনা হয়।

৩২ বছর বয়সী ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মাদ বিন সালমান এখন সৌদি আরবের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ব্যক্তি।

সৌদি সূত্রটি জানিয়েছে, ওইসব ভাড়া করা লোকজনই আটক প্রিন্সদেরকে মারধর ও নির্যাতন চালাচ্ছে। তারা প্রিন্সদের ইচ্ছামতো অশ্লীগ গালি-গালাজ ও চড়-থাপ্পড় থেকে শুরু করে সব ধরনের নির্যাতন চালাচ্ছে।

উল্লেখ্য, গত ৪ নভেম্বর সৌদি আরবের ১১ জন প্রিন্স এবং বর্তমান ও সাবেক ৩০জন মন্ত্রীকে আটক করা হয়। এরমধ্যে ধনকুবের ওয়ালিদ বিন তালাল রয়েছেন।

আটক প্রিন্সদের কাছ থেকে যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমান এরই মধ্যে ১৯ হাজার ৪০০ কোটি ডলার জব্দ করেছেন।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close