লন্ডন থেকে

তীব্র সমালোচনার মুখে থাকা টিউলিপের পাশে রূপা হক

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: এক অন্তঃসত্ত্বা সাংবাদিককে নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়ে পড়া যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির এমপি টিউলিপ সিদ্দিকের পাশে দাঁড়িয়েছেন দলটির আরেক এমপি বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রূপা হক।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আত্মীয় হওয়ার কারণেই সেখানকার ঘটে যাওয়া বিষয়ে টিউলিপ সিদ্দিককে মুখপাত্র হিসেবে আশা করা অন্যায়।’ চ্যানেল ফোরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে টিউলিপ সিদ্দিকের সঙ্গে একজন টিভি সাংবাদিকের ঘটে যাওয়া অপ্রীতিকর ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় রূপা হক এসব কথা বলেন।

এ প্রসঙ্গে রূপা হক বলেন, ‘টিউলিপের মতো আমিও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক। তাদের (সমালোচকদের) ইচ্ছা অনুযায়ী আমাকেও বাংলাদেশের সব বিষয়ের প্রতিনিধিত্ব করতে হবে? তাহলে আর কোনও চাপ থাকবে না?’ তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মানবাধিকার যে কারও জন্য বিশাল ব্যাপার হতে পারে। এজন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন ও পররাষ্ট্র দফতর আছে, যারা এ নিয়ে সঠিক মাধ্যমে কথা বলবেন। আমাদের মতো পেছনের বেঞ্চের এমপিরা নন, বৈদেশিক ও কমনওয়েলথ অফিসই এসব নির্ধারণ করে।

বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক কার্যক্রমে কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আছে বলে স্বীকার করে রূপা বলেন, ‘এ বছর বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত পার্লামেন্টারি ডেলিগেশনে আমি বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশকে সতর্ক করেছি। অসাম্প্রদায়িক ব্লগারদের অপহরণ ও গুমের ঘটনায় যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টেও উদ্বেগ প্রকাশ করেছি।’ তবে এটা তার আসল কাজ নয় বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘আমার কাজ হলো ব্রিটেনে আমার এলাকার মানুষের প্রতিনিধিত্ব করা।’

উল্লেখ্য, একটি প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার সময় চ্যানেল ফোরের এক সাংবাদিক টিউলিপ সিদ্দিকের কাছে বাংলাদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিষয়ে জানতে চান। এসময় বিষয়টি নিয়ে ওই চ্যানেলের রিপোর্টার অ্যালেক্স থমসনের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। পরে ওই চ্যানেলের প্রযোজক ডেইজি অ্যাইলেফির উদ্দেশে তার গর্ভের শিশুর ভবিষ্যৎ নিয়ে টিউলিপ মন্তব্য করেন। এ নিয়ে বিতর্কের মুখে পড়েন তিনি।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close