শরীর স্বাস্থ্য

কিছু বদ অভ্যাসের কারণে হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

শরীর স্বাস্থ্য ডেস্ক: হার্ট অ্যাটাক রোগটির সঙ্গে আমরা কমবেশি সবাই পরিচিত। মূল কিছু বদভ্যাসের কারণে এ রোগটির ঝুঁকি বাড়ে। কিন্তু সামান্য সচেতনতাই পারে হার্ট অ্যাটাকের মতো কঠিন রোগ থেকে আমাদের বাঁচাতে।

হার্ট অ্যাটাকের বিষয়ে যুগান্তরের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় আলোচনা করেছেন ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতালের চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালট্যান্ট ডা. এম ইয়াছিন আলী।

ডা. এম ইয়াছিন আলী বলেন, হার্ট অ্যাটাকের সমস্যার বিষয়ে সবার সচেতন থাকা জরুরি। বুক ভার হয়ে আসা, পেটের ওপরের অংশে অসহনীয় ব্যথা অনুভব করা, বাঁ হাত ব্যথা, চোয়াল ও ঘাড় ব্যথা এবং শ্বাসকষ্ট। এ লক্ষণগুলো টের পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া প্রয়োজন। এছাড়া বমি বমি ভাব, মাথা ঘোরা ও ঘাম হওয়া। পুরুষদের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময় বুক ব্যথার লক্ষণ দেখা যায়। অন্যদিকে নারীদের ক্ষেত্রে শ্বাসকষ্ট, বমি বমি ভাব, চোয়াল ও মেরুদণ্ড ব্যথা হয়।

তিনি বলেন, মূলত কিছু বদভ্যাসের কারণে হার্ট অ্যাটাক হয়ে থাকে। আমার যদি একটু ব্যক্তিসচেতন হই খুব সহজেই এ সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে পারি। ধূমপান, মদ্যপান, ব্যায়ম না করা, অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ ও অতিভোজন হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়।

জেনে নিই যে কারণে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে-

ধূমপান

ধূমপান একটি বদভ্যাস। ধূমপানের ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়। তাই হার্ট অ্যাটাক থেকে বাঁচাতে ধূমপান বর্জন করতে হবে।

মদ্যপান

হার্ট অ্যাটাকের অন্যতম কারণ হচ্ছে অতিরিক্ত মদ্যপান করা। অতিরিক্ত মদ্যপান করলে রক্তে চর্বির পরিমাণ ও উচ্চরক্তচাপে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে। এছাড়া অতিরিক্ত ক্যালরি ওজন বাড়ায়। ফলেও হৃৎপিণ্ডের স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হয়।

ব্যায়ম না করা

ব্যায়ম না করলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। দীর্ঘক্ষণ নড়াচড়া না করার ফলে রক্তে চর্বি এবং সুগারের মাত্রা বেড়ে যায়। সুতরাং একটানা বেশিক্ষণ বসে থাকা যাবে না।

অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার

অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ায়। কারণ চর্বিযুক্ত খাবার ওজন বাড়ায়। ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। এছাড়া লাল মাংসে সম্পৃক্ত চর্বির পরিমাণ বেশি থাকে। আর প্রক্রিয়াজাতকৃত মাংস হলে হৃদরোগের ঝুঁকি এবং মলাশয় ক্যান্সারের ঝুঁকি আরও বাড়ে।

অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপ

যাদের ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপের সমস্যা রয়েছে তাদের অবশ্যই ডায়াবেটিস ও উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। যদি এর ব্যত্যয় ঘটে, তবে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। তাই এক্ষেত্রে সচেতন থাকতে হবে।

অবসাদ

মানসিক চাপ, বা অবসাদগ্রস্ততা আপনার হৃৎপিণ্ডের ক্ষতি করে। মানসিক চাপ অবদমন করলে তা আপনার দেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতি বয়ে আনতে পারে। এক্ষেত্রে সচেতন হতে হবে।

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close