স্বদেশ জুড়ে

তথ্য প্রযুক্তির যথাযথ প্রয়োগ ঘটাতে হবে: রাবিতে আইসিটি দিবসের সমাবেশে বক্তারা

নিউজ ডেস্ক: ‘সবার জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট স্লোগান সামনে’ রেখে সারাদেশের মত প্রথমবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পালিত হয়েছে জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি দিবস। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অনুষদ দিবসটি উপলক্ষে আজ সকাল সাড়ে দশটায় চতুর্থ বিজ্ঞান ভবন থেকে শোভাযাত্রা বের করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিনেট ভবনের সামনে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে।

সমাবেশে বক্তব্য দেন, প্রকৌশল অনুষদের ডীন ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যপক ড.মো. মামুন-উর-রশীদ খন্দকার, ইনফরমেশন এন্ড কমিউকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি অধ্যপক দীপংকর দাশ, ফলিত পদার্থবিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক বিভাগের অধ্যপক ড. আরিফুল ইসলাম নাহিদসহ বিভিন্ন শিক্ষার্থী।

সমাবেশে ড.মো. মামুন-উর- রশীদ খন্দকার বলেন,‘‘বিদ্যুৎ যেমন অপরিহার্য তেমনি আইসিটি ব্যবহার তেমনি অপরিহার্য। প্রযুক্তির দুইটা দিক দুই ধারী তলোয়ারের মতো। যা যেতেও কাটবে আসতেও কাটবে। এটি ব্যবহার করতে খুবই আরাম কিন্তু যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ জ্ঞান না থাকলে অনেক বেশি ক্ষতি সাধন করতে পারে। আমরা অন্যের উদ্ভাবন করা প্রযু্িক্ত ব্যবহার করছি কিন্তু এখন আমাদের নিজস্ব প্রয়োজনে নিজস্ব রকমের নিরাপত্তা পদ্ধতি আবিষ্কার করতে হবে।’’

ড.দীপংকর দাশ বলেন,‘‘আইসিটি সেক্টরে আমরা বহির্বিশ্বের তুলনায় অনেক পিছিয়ে আছি। কাজেই এক্ষেত্রে উন্নয়নের জন্য আমাদের আইসিটির যে ফিজিক্যাল ব্যাকবোন এবং আইসিটি বিভাগের যে দক্ষ প্রফেশনাল এ সকল সেক্টরে আমাদের উন্নতি করতে হবে। শুধুমাত্র কম্পিউটার সিস্টেম দিয়ে আইসিটি সিস্টেমকে ডেভেলপমেন্ট করা যাবে না। কমিউকেশন সাইডও একইভাবে ডেভেলপ করতে হবে।

তিনি উদ্বেগের সাথে আরো বলেন, আমাদের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইনফরমেশন এন্ড কমিউকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে পাশ করার পরে চাকরির ক্ষেত্রে বিভিন্ন জায়গায় বিশেষ করে বিএসসি,এমপিআরসি এসমস্ত সেক্টরে হয়রানির শিকার হচ্ছে। তারা এসকল বিষয়ে ¯œাতকোত্তর করার পরেও শুনতে হচ্ছে তোমাদের ছয় মাসের ডিপ্লোমা কোর্স করে আসতে হবে। এটা আমাদের আইসিটি বিভাগের জন্য লজ্জাজনক।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close