ভারত জুড়ে

শতাব্দী প্রাচীন কংগ্রেসের দায়িত্ব নিলেন ৪৭ বছরের রাহুল গান্ধী

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: দলের এক নম্বর হিসেবে গত সপ্তাহেই তাঁর নাম ঘোষণা করেছিল দল। এ বার আনুষ্ঠানিক ভাবে দলের সভাপতির দায়িত্ব নিলেন রাহুল গান্ধী ।

শনিবার নয়াদিল্লির ২৪ আকবর রোডে দলীয় কার্যালয়ে রাহুলের হাতে এই দায়িত্ব তুলে দেন মা সোনিয়া গান্ধী । ২০১৩ সালে দলের দু’নম্বর হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন তিনি। এ বার পদোন্নতি হল ৪৭ বছরের রাহুলের।

রাহুল, সোনিয়া , প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা ছাড়াও এ দিন উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ-সহ শীর্ষ কংগ্রেস নেতারা। সকাল থেকে কংগ্রেস দফতর সেজে উঠেছিল। ছিলেন লোকশিল্পীরা। চলে মিষ্টি বিতরণ। সভাপতি হিসাবে রাহুল গান্ধীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সোনিয়া গান্ধী বলেন,”দেশের রাজনীতি ,সমাজজীবন এক গুরুত্বপূর্ণ সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে।যা থেকে বিচ্ছিন্ন নয় কংগ্রেসও। এই গুরুত্বপূর্ণ সন্ধিক্ষণে নতুন নেতৃত্বে কংগ্রেস এগিয়ে যাবে, এটা আমার দৃঢ় বিশ্বাস।”

নেহরু-গান্ধী পরিবারের ঐতিহ্যের কথা তুলে ধরে সোনিয়া বলেন ,” নেহরু-গান্ধী পরিবারের কাছে দেশই জীবন। বিশ বছর আগে এমনই এক দিনে সভাপতি হিসেবে আমার অভিষেক হয়েছিল। রাজীব, ইন্দিরা গান্ধীর রেখে যাওয়া কাজ শেষ করার চেষ্টা করেছিলাম। রাহুলের উপর বিশ্বাস রয়েছে। ওঁর নেতৃত্বে এগিয়ে যাবে দল। দেশে অস্থির পরিবেশ তৈরি হয়েছে। সবাইকে একত্র থাকতে হবে। আমার আশা রাহুলের নেতৃত্বে কংগ্রেস দেশবাসীর আশা পূরণ করতে পারবে।”

দেশের সাম্প্রতিক অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন ,”সাম্প্রদায়িক শক্তি ফের মাথাচাড়া দিচ্ছে। মত প্রকাশের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে।”

সভাপতির দায়িত্ব নেওয়ার পর রাহুল গান্ধী তাঁর প্রথম ভাষণে বললেন , ‘১৩ বছর আগে রাজনীতিতে এসেছি। দেশের মানুষের ভালবাসাই আমাকে টেনে এনেছে রাজনীতিতে। তাদের জন্য কিছু করতে পারলে ভাল লাগবে।’

এরপরই কেন্দ্রের শাসকদলকে খোঁচা মেরে রাহুল বললেন, ‘এই সরকার দেশকে গরিব বানিয়ে রাখতে চাইছে। রাজনীতির উদ্দেশ্য মানুষের উন্নতি, ক্ষতি নয়। জনগণই বা কী করবে। যারা ক্ষমতায় থাকে তাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলাই তো সমস্যার। যখনই আপনি ক্ষমতাকে চ্যালেঞ্জ করবেন, তখনই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠবে। দেশে আগুন লাগানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। ওরা ভাঙতে পারে। আমরা তৈরি করি। দেশকে বাঁচাতে পারে একমাত্র কংগ্রেসই।’

একটু থেমে রাহুল জুড়লেন, ‘এভাবে কংগ্রেসকে দমিয়ে রাখা যাবে না। কংগ্রেসকে হারালেও দুর্বল করা যাবে না। গণতন্ত্রের উপর আঘাত কখনোই মেনে নেবে না কংগ্রেস। ভালবাসা দিয়ে দেশবাসীর মন জয় করব আমরা। দেশকে বাঁচাতে পারে একমাত্র কংগ্রেসই। আমি চাই দেশবাসীর মুখের ভাষা হয়ে উঠুক কংগ্রেস। বিজেপি চাইছে কংগ্রেসহীন ভারত তৈরি করতে। কিন্তু এই চেষ্টা কখনোই সফল হবে না।’

Tags

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close