Featuredযুক্তরাজ্য জুড়ে

যুক্তরাজ্যে নিঃসঙ্গতার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মন্ত্রী নিয়োগ

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: নিঃসঙ্গতা ও সামাজিকভাবে লোকজনের বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রথমবারের মতো একজন মন্ত্রী নিয়োগ দিয়েছে যুক্তরাজ্য।

বুধবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এ নিয়োগ দেন। নতুন দায়িত্ব পাওয়া মন্ত্রী ট্রেসি ক্রউচ বর্তমানে ক্রীড়া ও সুশীল সমাজ বিষয়ক মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। এখন থেকে তিনি একইসঙ্গে উভয় দায়িত্ব পালন করবেন।

ট্রেসি ক্রউচ ২০১৬ সালের জুনে প্রকাশ্য দিবালোকে খুন হন শরণার্থীদের অধিকারের পক্ষে লড়াই করা সাবেক ব্রিটিশ এমপি জো কক্স। খুন হওয়ার আগে এ সংক্রান্ত একটি কমিশনের পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি।

নতুন এই মন্ত্রণালয় স্থাপনের মাধ্যমে নব্য নাৎসিবাদীদের হাতে খুন হওয়া জো কক্সের স্মৃতির প্রতিও শ্রদ্ধা জানালো ব্রিটিশ সরকার।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেছেন, জো কক্স দেশজুড়ে নিঃসঙ্গতার মাত্রার বিষয়টি তুলে ধরেছেন। এতে আক্রান্তদের জন্য তিনি নিজেকে উজাড় করে দিয়েছিলেন।

নিঃসঙ্গতা বিষয়ক নতুন মন্ত্রী জো কক্স কমিশনের সুপারিশগুলোকে সামনে এগিয়ে নেবেন।

এক গবেষণায় বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যের ৯০ লাখেরও বেশি মানুষ সবসময় বা প্রায়ই নিঃসঙ্গতায় ভোগেন। প্রায় দুই লাখ প্রবীণ ব্যক্তি এক মাসেরও বেশি সময় ধরে কথা বলার মতো কোনও বন্ধু বা স্বজনকে পান না। ১৮ থেকে ৩৪ বছর বয়সী ৮৫ শতাংশ প্রতিবন্ধী নিঃসঙ্গতায় ভোগেন।

এর আগে গত বছরের গোড়ার দিকে দাতব্য সংস্থা এজ ইউকে’র এক প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাজ্যে ৬০ বছরের বেশি বয়সী প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ গভীর নিঃসঙ্গতায় ভুগছেন।

কারও সঙ্গে সাক্ষাৎ ছাড়াই তারা পুরো একটি  সপ্তাহ কাটিয়ে দিচ্ছেন। দাতব্য সংস্থাটির গবেষণায় বহু বছর ধরে নিঃসঙ্গতা কাটানোর অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ইংল্যান্ডের ১২ লাখ বয়স্ক মানুষের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।

কেননা এটি দুরারোগ্য বা দীর্ঘস্থায়ী স্বাস্থ্য সমস্যা তৈরি করতে পারে। নিঃসঙ্গতার ঝুঁকিতে থাকা বয়স্ক মানুষদের শনাক্ত করতে তাদের প্রতিবেশী ও কর্মীদের প্রশিক্ষণের জন্য একটি পাইলট প্রোগ্রামও নিয়েছে সংস্থাটি।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে বলেন, আধুনিক জীবনে বহু সংখ্যক মানুষের জন্য নিঃসঙ্গতা একটি দুঃখজনক বাস্তবতা। আমি সমাজের এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে চাই। এই নিঃসঙ্গতা মোকাবিলায় আমাদের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে হবে।

এজ ইউকে-এর পরিচালক ক্যারোলিন আব্রাহামস বলেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত নিঃসঙ্গতার কোনও সহজ সমাধান নেই… আমাদের পাইলট প্রোগ্রাম দেখিয়েছে যে, আমরা সত্যিই একটা ভিন্নতা তৈরি করতে পারি।

আমরা জেনেছি, বয়স্ক নিঃসঙ্গ মানুষদের কার্যকর সাহায্য করতে গেলে তাদের স্বতন্ত্র চাহিদার বিষয়টি আমাদের স্বীকার করতে হবে। পেশাদার দক্ষতার ক্ষেত্রে আমাদের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস) এবং আরও চ্যানেল রয়েছে। স্থানীয় সম্প্রদায়গুলোর সদিচ্ছা আছে।’

দাতব্য সংস্থাটির বিশ্বাস, বয়স্ক মানুষদের এমন চরম নিঃসঙ্গতা ইতোমধ্যেই টানাপোড়েনে থাকা স্বাস্থ্য সেবার ওপর বাড়তি চাপ তৈরি করছে। স্থানীয় রাজনীতিবিদদের প্রতি তহবিল গঠনের সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে নিঃসঙ্গতার বিষয়টি বিবেচনার আহ্বান জানানো হয়েছে।

নানা প্রতিবন্ধকতা থাকলেও হাল ছাড়তে নারাজ চ্যাটহ্যাম অ্যান্ড অ্যালেসফোর্ড এলাকা থেকে ক্ষমতাসীন দল টোরি পার্টির টিকিটে নির্বাচিত এমপি ট্রেসি ক্রউচ। তিনি বলেছেন, নিঃসঙ্গতাকে পরাজিত করতে তিনি বদ্ধপরিকর।

সাধারণভাবে মনে করা হয়, যুক্তরাজ্যে ৭৫ বছর বা এর অধিক বয়সীদের অর্ধেকই নিঃসঙ্গতায় ভুগছেন। এদের অনেকেই বলছেন, কোনও ধরনের সামাজিক যোগাযোগ ছাড়াই তারা দিন বা সপ্তাহ পার করছেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close