AmericaFeatured

ব্রিটিশ স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে ট্রাম্পের বিস্ফোরক মন্তব্যে যুক্তরাজ্যে তোলপাড়

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই শতাব্দী পুরোনো ইঙ্গ-মার্কিন সম্পর্কে তিক্ততার সৃষ্টি হয়। এই তিক্ততা আরো বৃদ্ধি পায় সোমবার ট্রাম্প ব্রিটিশ সরকারি স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে কটাক্ষপূর্ণ একটি টুইট করার পর।

ট্রাম্প মার্কিন স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে ডেমোক্র্যাটদের সমালোচনা করে করা টুইটটিতে ব্রিটিশ সাস্থ্যখাতকে ‘ভঙ্গুর ও অচল’ বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘ডেমোক্র্যাটরা স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে কথা বলছে অথচ যুক্তরাজ্যে ভঙ্গুর ও অচল স্বাস্থ্যসেবার বিরুদ্ধে হাজারো মানুষ বিক্ষোভ করছে। ডেমোক্র্যাটরা একটি অ-ব্যক্তিগত ও বাজে চিকিৎসা সেবার জন্য জনগণের ট্যাক্স বাড়াতে চাচ্ছে।’

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’কে ট্রাম্পের টুইট সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমি ব্রিটিশ স্বাস্থ্যখাত নিয়ে গর্বিত। বিরোধীদল লেবার পার্টির প্রধান জেরেমি করবিন ট্রাম্পের টুইটের সমালোচনা করে টুইট করেন, ‘ভুল, মানুষ বিক্ষোভ করছে কারণ তারা ব্রিটিশ স্বাস্থ্যসেবাকে ভালোবাসে এবং রিপাবলিকানদের এ বিষয়ক বিরোধিতাকে ঘৃণা করে। স্বাস্থ্যসেবা একটি মৌলিক অধিকার।’

ব্রিটিশ নাগরিকরা বিশেষ করে চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যসেবার সাথে যুক্ত ব্যক্তিরা ট্রাম্পের টুইটের পর ক্ষোভে ফেটে পড়ে। চিকিৎসকরা বলেন, আমরা গর্বিত যে যুক্তরাজ্য পৃথিবীর অন্যতম স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে থাকে।

নাতাশা হোয়াইট নামের এক নার্স ট্রাম্পের টুইটের জবাবে ক্ষুদ্ধ হয়ে টুইট করেন, ‘কোন সাহসে আমাদের স্বাস্থ্য খাত নিয়ে কথা বলছেন। আমি সরকারি সাস্থ্য প্রকল্পের আওতায় একটি চমৎকার সংস্থায় নার্স হিসেবে কর্মরত আছি। যা দেখেননি তা নিয়ে মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকুন।’

ব্রিটিশ স্বাস্থ্যখাত নিয়ে ট্রাম্পের বিস্ফোরক মন্তব্যে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য সম্পর্কে আরো খারাপের দিকে যাবে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close