Featuredজাতীয়

মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী আর নেই

শীর্ষবিন্দু নিউজ: মুক্তিযোদ্ধা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়াভাষিণী আর নেই।মঙ্গলবার দুপুর পৌ্ণে একটায় ল্যাবএইড হাসপাতালে তিনি মারা যান।

কিডনি ও হৃদরোগের জটিলতা নিয়ে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার দুপুরে তার মৃত্যু হয় বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধে তার অবদান দেশ ও জাতি চিরদিন মনে রাখবে।

বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত এই মুক্তিযোদ্ধার বয়স হয়েছিল ৭১ বছর। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হওয়ার পর তার ছেলে ধুব্র অস্ট্রেলিয়া থেকে ফিরলে আগামী বৃহস্পতিবার তাকে মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরাস্থানে দাফন করা হবে। এর আগে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে তার লাশ ওই দিন নেয়া হবে শহীদ মিনারে।

ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণীর জন্ম ১৯৪৭ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি, খুলনায় নানার বাড়িতে। তাঁর বাবার নাম সৈয়দ মাহবুবুল হক এবং মায়ের নাম রওশন হাসিনা। বাবা-মায়ের ১১ সন্তানের মধ্যে প্রিয়ভাষিণী ছিলেন সবার বড়। ১৯৬৩ সালে প্রথম বিয়ে করেন। পরে ১৯৭২ সালে প্রিয়ভাষিণী দ্বিতীয়বার বিয়ে করেন। তাঁর দ্বিতীয় স্বামী আহসান উল্লাহ আহমেদ ছিলেন প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা। তাঁর ছয় সন্তান। তিন ছেলে ও তিন মেয়ে। তিনি খুলনার পাইওনিয়ার গার্লস স্কুল থেকে এসএসসি এবং খুলনা গার্লস স্কুল থেকে এইচএসসি ও ডিগ্রি পাস করেন।

১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯৮ পর্যন্ত তিনি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেছেন। মাঝে কিছুদিন স্কুলে শিক্ষকতাও করেছেন। তিনি ইউএনডিপি, ইউএনআইসিইএফ, এফএও, কানাডিয়ান দূতাবাস প্রভৃতি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেছেন। শেষ বয়সে এসে নানা শিল্পকর্ম সৃষ্টিতে মনোনিবেশ করেন এবং তা অবিরামভাবে অব্যাহত রাখেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close