Featuredইউরোপ জুড়ে

রাশিয়ার দিকে পারমাণবিক বোমা ছোড়া হলে পৃথিবী ধ্বংস করে দেব

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: পৃথিবীকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দেয়ার হুমকি দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

বলেছেন, যদি রাশিয়ার দিকে পারমাণবিক অস্ত্র ছোড়া হয় তাহলে পৃথিবীকে ধ্বংস করে দেয়া হবে। সেটা হবে ভয়াবহ এক বিপর্যয়। রাশিয়ার ছোড়া পারমাণবিক অস্ত্রের আঘাতে মুছে যাবে সব কিছু।

রাশিয়া যদি টিকে না থাকে, তাহলে তেমন পৃথিবী আমাদের প্রয়োজন নেই। রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা চালাচ্ছেন পুতিন।

এ উপলক্ষে এক টিভি প্রামাণ্যচিত্রে তিনি এসব মন্তব্য করেছেন। কিন্তু কোন ঘটনার প্রেক্ষিতে এমন রণহুঙ্কার দিলেন তিনি তা স্পষ্ট নয়। তবে কিছু ঘটনা এখানে প্রাসঙ্গিক হতে পারে। এক. বৃটেনে অবস্থানরত রাশিয়ান গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়ে ইউলিয়াকে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। সন্দেহের আঙুল তোলা হচ্ছে রাশিয়ার দিকে।

কারণ, স্ক্রিপাল বৃটেনের পক্ষে গুপ্তচরবৃত্তি করেছিলেন। এর আগেও রাশিয়ান নাগরিক এক গুপ্তচর আলেকজান্দার লিতভিনেনকোকে বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়েছিল ওই বৃটেনেই। লিতভিনেনকোর শরীরে প্রয়োগ করা হয়েছিল তেজস্ক্রিয় পোলোনিয়াম। তার বিষক্রিয়ায় তিনি মারা যান। এ দুটি ঘটনা কাকতালীয়ভাবে খুব কাছাকাছি। স্ক্রিপাল ও তার মেয়ে এখন হাসপাতালে জীবনের সঙ্গে লড়াই করছেন। এতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আঙুল উঠেছে। খোদ বৃটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন হাউস অব কমন্সে বক্তব্য রেখেছেন। তিনি বলেছেন, যারাই এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকুক তাদেরকে জবাব না দিয়ে ছেড়ে দেয়া হবে না। এবং সেই জবাব হবে কঠোর।

ওদিকে সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট  বাশার আল আসাদের সঙ্গে মিশে আইএসের বিরুদ্ধে লড়াই করছে রাশিয়া। এ নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে তার রয়েছে বিরোধ। উত্তর কোরিয়া ইস্যুতে রাশিয়া জাতিসংঘের অবরোধ লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ আছে।

অভিযোগ রয়েছে, তারা গত মাসেই উত্তর কোরিয়াকে জ্বালানি সরবরাহ দিয়েছে। এসব নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে পুতিনের বিরোধ। ফলে কোন ইস্যুকে লক্ষ্য করে তিনি ওই মন্তব্য করেছেন তা স্পষ্ট নয়। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এ সপ্তাহে প্রচারণাকালে ভক্ত নারীদের জড়িয়ে ধরে তাদেরকে চুমু খেয়েছেন। এ ছবি প্রকাশিত হয়েছে।

পাশাপাশি তিনি পরিষ্কার করে বলেছেন, যদি পারমাণবিক অস্ত্রের আঘাত লাগে রাশিয়ার বুকে, যদি রাশিয়াকে মুছে দেয়ার চেষ্টা করা হয় সেদিন পৃথিবী টিকে থাকার কোনো অর্থই থাকবে না।

টেলিভিশনের এক প্রামাণ্যচিত্রে তিনি বলেছেন, আমি যা বলছি এটা আপনাদের জন্য এবং সারা বিশ্বের জন্য। পুতিন বলেন, আমাদের পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের পরিকল্পনা রয়েছে। আমি মনে করি তা কখনো ব্যবহারের প্রয়োজন হবে না। তথাকথিত প্রতিশোধ বা পাল্টা হামলায় এগুলো ব্যবহারের তাত্ত্বিক পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। যদি আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র সতর্ক ব্যবস্থায় শুধু কোনো ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার কথা রেকর্ড হয় তাহলেই শুধু নয়, একই সঙ্গে যদি ক্ষেপণাস্ত্রের উড়ে যাওয়া প্রকৃত পূর্বাভাস দেয়, কোনো যুদ্ধাস্ত্র রাশিয়ার মাটিতে পড়ে তাহলেই আমাদের পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের সিদ্ধান্ত রয়েছে।

তিনি বলেন, একে বলা হয় প্রতিশোধ বা পাল্টা হামলা। যখনই আমরা আইনগত সাড়া পাবো তখনই এ প্রতিশোধ নেয়া হবে। তিনি বলেন, হ্যাঁ, এটা হবে বিশ্বজুড়ে মানবজাতির জন্য এক ভয়াবহ বিপর্যয়। এটা হবে বিশ্বের জন্য এক ভয়াবহ বিনাশ। রাশিয়ার একজন নাগরিক হয়ে, রাশিয়ার রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে আমি জানতে চাই রাশিয়ার অস্তিত্ব ছাড়া কোনো বিশ্ব টিকে থাকার প্রয়োজন আছে কি?

উল্লেখ্য, এ সপ্তাহে একজন নারী ভক্ত প্রেসিডেন্ট পুুতিনের সঙ্গে একটি সেলফি তুলতে গেলে তিনি তাকে চুমু দেন। এ ঘটনা ধরা পড়ে ক্যামেরায়। সবাই তা দেখে বিস্মিত হয়ে যান। মস্কোর লুজনিকি স্টেডিয়ামে ওই নারী লারিসা সারগুখিনাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খান ৬৫ বছর বয়সী এই রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট। সেখানে এক কনসার্ট হচ্ছিল। কনসার্টের পর এ ঘটনা ঘটে। গত ৩রা মার্চ ওই কনসার্ট হয় সেখানে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close