Featuredযুক্তরাজ্য জুড়ে

বার্মিংহামস্থ মেয়র অফিসে আবারো উড়লো বাংলাদেশের পতাকা স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন

নিউজ ডেস্ক: অত্যন্ত উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ সহকারী হাই কমিশন, বার্মিংহাম-এর উদ্যোগে ২৬ মার্চ ২০১৭ তারিখে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়।

সহকারী হাই কমিশনের উদ্যোগে স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে বার্মিংহামস্থ সিটি কাউন্সিল-এর সামনে পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। সহকারী হাই কমিশনার জনাব মোহাম্দ জুলকার নায়েন, এবং বার্মিংহামস্থ ডেপুটি লর্ড মেয়র কাউন্সেলর শফিক শাহ একসংগে পতাকা উত্তোলন করেন। স্যান্ডওয়েল-এর মেয়র এবং বার্মিংহামস্থ ডেপুটি লর্ড মেয়র প্রবাসী বাংলাদেশীদের মহান স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন। তাঁরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বর্তমান সরকারের অগ্রযাত্রায় সাফল্য কামনা করে প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি বৃটিশদের সমর্থনের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে সহকারী হাই কমিশন হলে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত-এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ সকল শহীদ ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য এবং বাংলাদেশের সামগ্রিক উন্নয়নে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। এরপর সকল শহীদদের স্মরণে দাড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। দিবসটি উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কর্তৃক প্রদত্ত বাণী অনুষ্ঠানে পাঠ করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ-এর স্বাধীনতার উপর একটি প্রামান্য চিত্র প্রদর্শিত হয়, যা উপস্থিত সকলেই অত্যন্ত আগ্রহ নিয়ে অবলোকন করেন।

প্রবাসী বাংলাদেশী বিভিন্ন রাজনৈতিক এবং সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অনুষ্ঠানে স্বত:স্ফুর্তভাবে অংশগ্রহন করেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্যান্ডওয়েল -এর মেয়র কাউন্সিলর আহমেদুল হক, এমবিই, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ, জনাব মিসির আলী, জনাব মেঃ আবদুস শুকুর, জনাব রহমত আলী, জনাব নাছির উদ্দিন হেলাল, জনাব শাহ আবিদ আলী, ডাঃ এ বি মোস্তফা, জনাব জালাল উদ্দিন এমবিই, জনাব আজির উদ্দিন, জনাব ইকবাল আহমেদ চৌধুরী, মহিলা নেত্রী শিমুল বিল্লাহ, জনাব রানা মিয়া, জনাব কামরুল হাসান চুন্নুসহ আরো অনেকে। সহকারী হাই কমিশনার জনাব মোহাম্মদ জুলকার নায়েন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে দিবসের তাৎপর্য বিশদভাবে উল্লেখ করে বর্তমান সরকারের দিক নির্দেশনা তুলে ধরেন। তিনি আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে অসামান্য সাফল্যের ফলে স্বল্পোন্নত ক্যাটাগরী থেকে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রবাসে ঐক্যবদ্ধভাবে নিরলস প্রচেষ্টার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ায় সামাজিক ও অর্থনৈতিকভাবে সকলকে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান।

সহকারী হাই কমিশনার সিটি কাউন্সিল প্রাঙ্গনে পতাকা উত্তোলনে সহযোগিতার জন্য সিটি কাউন্সিলকে ধন্যবাদ জানান। সকল শ্রেণীর প্রবাসী বাংলাদেশীদের অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য সহকারী হাই কমিশনার তাদের প্রতিও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে আপ্যায়নের মাধ্যমে অনুষ্ঠান সমাপ্ত করেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close