Featuredলন্ডন থেকে

লন্ডনে বর্ণবাদের বিপক্ষে শত শত মানুষের উপস্থিতিতে মানববন্ধন

শীর্ষবিন্দু নিউজ: মানবতাবাদী সংস্থা ইউনাইটেড ইষ্টএন্ড এর উদ্যেগে মঙ্গলবার ৩ এপ্রিল বর্ণবাদ, ইসলামোপোবিয়ার বিরুদ্ধে এক বিশাল সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

পুর্ব লন্ডনের হোয়াইট চ্যাপেল রোডে অবস্থিত ইস্ট লন্ডন মসজিদের সম্মুখে সর্বদলীয় ভাবে বিভিন্ন কমিউনিটির মানুষ এ সমাবেশে অংশ গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য, ব্রিটেনে ৩ এপ্রিল পানিশ মুসলিম ডে বা ‘মুসলমানদের শাস্তি দেয়ার আহবান জানিয়ে গত মার্চ মাসের প্রথম সাপ্তাহে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন পাঁচটি শহরে বিভিন্ন ঠিকানায় অজ্ঞাত পরিচয়ে কয়েকশ’ চিঠি পোস্ট করা হয়। এমনকি মুসলিম এমপি, মেয়র ও জনপ্রতিনিধিদেরও হুমকি দিয়ে এ বর্ণবাদী চিঠি পোষ্ট করা হয়।

মঙ্গলবার বিকালে ইস্ট লন্ডন মসজিদের সামনে বিশাল মানববন্ধ অনুষ্ঠিত হয়।  এদিন বর্ণবাদের বিপরীতে এই দিনকে ‘সুখে থাকি এক সাথে’ বা হেপিয়ার টু গেদার নামে সলিডারিটি মানব বন্ধন করেছে কমিউনিটির সর্বস্থরের মানুষ। এতে মুসলিম ছাড়া বিভিন্ন ধর্মের শত শত মানুষ অংশ নেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় এমপি রুশনারা আলী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নির্বাহী মেয়র জন বিগসসহ কমিউনিটি বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দ ।

এ সময় সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রুশনারী এমপি বলেছেন, আমরা এই চিঠি পেয়ে ভীত নই, কোন বর্ণবাদী শক্তি আমাদের কমিউনিটিকে বিভক্ত করতে পারবেনা।  তিনি বর্ণবাদীদের বিরুদ্ধে আরো কঠোর হতে সরকারের প্রতি আহবান জানান।

সমাবেশে উপস্থিত অনেকে তাদের অভিমত ব্যক্ত করে বলেন, অতিসাম্প্রতি মুসলিম বিদ্বেষীরা পানিশ এ মুসলিম চিঠি’র মাধ্যমে মুসলিম কমিউনিটিতে ভয় সৃস্টি করা হরেছে। চিঠিতে মুসলিম নারীদের স্কার্ফ খুলে ফেলা, মসজিদ জ্বালিয়ে ফেলা এবং মুসলমানদের পবিত্র স্থানসমুহে আক্রমন করার ইংগিত দিয়েছে।

তাছড়া সাম্প্রতিক সময়ে ব্রিটেনে মুসলিম বিদ্বেষী ব্যাপক তৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা বলেন, আমরা বহুজাতিক সমাজে সমঅধিকারের ভিত্তিতে বসবাস করছি। এখানে বর্ণ, বৈষম্যের কোন স্থান নেই। এর বিরুদ্ধে প্রতিবাত জানাতে এবং সংহিত প্রকাশ করতে সর্বদলীয় ভাবে সবাই এখানে উপস্থিত হয়েছেন।

প্রতিবাদ সমাবেশে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী ও কমিউনিটি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও সর্বস্তরের শত শত মানুষ উপস্থিত হয়ে সংহিত প্রকাশ করেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close