Featuredকানাডা জুড়ে

সাংবাদিক থেকে ফার্স্ট লেডি

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ: সোফি গ্রেগরি ট্রুডো টেলিভিশনের উপস্থাপিকা থেকে এখন কানাডার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী অর্থাৎ কানাডার ‘ফার্স্ট লেডি’। এছাড়াও তিনি গায়িকা হিসেবেও খ্যাত।

২০১৬ সালের ১৮ জানুয়ারি নিজের কথা ও সুরে তার গাওয়া ‘স্মাইল ব্যাক অ্যাট মি’ গানটি বেশ সুনাম কুড়িয়েছেন। স্বামীর সাথে মডেলও হয়েছেন তিনি। সোফি বর্তমানে মানবিক সহায়তার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রেখে নারী অধিকারের উপর কাজ করছেন।

১৯৭৫ সালের ২৪ এপ্রিল জন্মগ্রহণ করেন। সোফির বয়স যখন চার বছর তখন তার পরিবার মন্ট্রিয়লে আসে। মাউন্ট রয়্যালে বড় হওয়া সোফির ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলো কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী পিয়েরে ট্রুডোর ছেলে এবং বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর ভাই মিশেল ট্রুডো। সেন্ট-নোম-ডি-ম্যারিতে পড়াশুনা শুরু করেন তিনি। এরপর কলেজ জেন-ডি-ব্রিবিউফের পর ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক শেষ করে বাবার পথেই হাঁটলেও পরবর্তীতে মন্ট্রিয়ল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণযোগাযোগে ডিগ্রি নিয়ে তার পেশা পরিবর্তন করেন।

পেশা জীবনের প্রথমে রিসিপশনিস্ট হিসেবে কাজ শুরু করলেও পরবর্তীতে যোগদান করেন অ্যাডভারটাইজিং ফার্মে। তিন বছর অ্যাডভারটাইজিং ফার্ম, পাবলিক রিলেশন্স এবং সেলসে কাজ করার পর রেডিও এবং টেলিভিশন নিয়ে শিক্ষাগ্রহণ করে সংবাদকর্মী হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। এরপর কুইবেকের ২৪ ঘণ্টার সংবাদ চ্যানেল এলসিএন এ বিনোদন প্রতিবেদক হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। প্রতিবেদক হিসেবে এলসিএনে যুক্ত থাকার পাশাপাশি একটি টেলিভিশন প্রোগ্রাম ও রেডিও প্রোগ্রামের উপস্থাপিকা হিসেবে কাজ করেন তিনি।

প্রতিবেদক হিসেবে কাজ করার সময় ২০০৫ সালে একটি চ্যারিটি প্রোগ্রামে সিটিভি টেলিভিশন নেটওয়ার্কের কর্মীদের সঙ্গে পরিচয় হয় তার। এরপর তিনি সেলিব্রেটিদের নানা মানবিক কাজের ওপর প্রতিবেদন করতে শুরু করেন। পরবর্তীতে নিজেকে একজন চ্যারিটি কর্মী হিসেবে নিয়োজিত করেন তিনি। কানাডিয়ান মেন্টাল হেলথ অ্যাসোসিয়েশন এবং ওমেন্স হার্ট এন্ড স্ট্রোক অ্যাসোসিয়েশনের মতো বেশ কয়েকটি চ্যারিটি ফার্মের সঙ্গে নিজেকে যুক্ত করেন তিনি। মন্ট্রিয়লে বেড়ে ওঠার সময়ই জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে পরিচয় তার। ২০০৩ সালে প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার পর ২০০৪ সালের অক্টোবরে তারা আংটি বদল করেন। ২০০৫ সালের ২৮ মে জাস্টিন ট্রুডোর সঙ্গে মন্ট্রিয়লের সেন্ট-মেডেলিন ডি’আউটরেমন্ট চার্চে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন তারা। বর্তমানে তিন সন্তানের জননী সোফি।

ইংরেজি, ফরাসি এবং স্প্যানিশ ভাষায় পারদর্শী সোফি। এছাড়া ২০১২ সালে ইয়োগা ইনস্ট্রাক্টর হিসেবে সার্টিফিকেট পান তিনি। আজ ছিলো সোফির জন্মদিন। জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে জাস্টিন তার ফেসবুকে তাদের এক রোমান্টিক ছবি পোস্ট করেছেন। সেখানে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করে তিনি সোফিকে বিস্ময়কর স্ত্রী এবং মা হিসেবে অভিহিত করেছেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

আরও দেখুন...

Close
ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close