যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

বৈধ কাগজহীন পরিবারের সন্তানদের আলাদা করেছে যুক্তরাষ্ট্র

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ: যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তবর্তী অঞ্চল থেকে বৈধ কাগজপত্র না থাকায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশাধিকারের ক্ষেত্রে প্রায় ১৮শ’ সন্তানকে তাদের বাবা-মায়ের থেকে পৃথক করা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কর্তৃক সীমান্তে কঠোর অবস্থা জারি করার কারণে ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে এ বছর ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ পরিসংখ্যানটির তথ্য জানিয়েছে দেশটির এক উর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা।

এ বিষয়টি নিয়ে দ্য আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন (আকলু) দেশটির সরকারের প্রতি অভিযোগ জানান। এসময় ৭বছর বয়সী এক শিশুকে সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে গ্রেফতারের পর তার মায়ের কাছ থেকে ২ হাজার মাইল দূরে সরকারি হেফাজতে রাখার বিষয়টির কঠোর সমালোচনা করেন।

এদিকে, দেশটির ডেমোক্রেটিক আইনপ্রণেতা এবং জাতিসংঘও বাবা-মায়ের কাছ থেকে সন্তান আলাদা করার বিষয়ে কঠোর নিন্দা জানিয়েছে।

যদিও এ প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ১৮শ’র ভেতর ১৭৬৮টি পরিবারকে চিকিৎসা কিংবা নিরাপত্তাজনিত কারণে পৃথক করা হয়েছে। এছাড়াও সন্তান সাজিয়ে নিয়ে আসার কারণেও অনেককে গ্রেফদদতার করা হয় বলেও জানান তারা।

উল্লেখ্য, ২০০১ সালে জর্জ বুশ ক্ষমতায় আসার পর থেকে অবৈধ অভিবাসীদের পৃথক করার এ চর্চাটি চলে আসছিল। তবে ট্রাম্প প্রশাসনই প্রথম এ চর্চাটিকে রাষ্ট্রীয় নীতিতে পরিণত করে।

গত মার্চে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ থেকে সন্তানদের পৃথক করে দেয়ার এ আইনটির বিবেচনাধীন বললেও মে মাসে যুক্তরাষ্ট্র সরকার স্পষ্ট জানিয়ে দেয় এ বিষয়ে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতিতে রয়েছে দেশটি।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close