Featuredলন্ডন থেকে

আমি চাইলে পাসপোর্ট দিতেও পারি আমি চাইলে পাসপোর্ট বাতিলও করতে পারি (ভিডিও)

অনাকঙ্খিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাই-কমিশনের দুঃখ প্রকাশ

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সম্প্রতি লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে এক পাসপোর্ট কর্মকর্তার দম্ভোক্তিপূর্ণ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর অরাজকতা এবং কর্মচারী, কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে

বাংলাদেশ হাইকমিশনের পাসপোর্ট কর্মকর্তার দম্ভোক্তিপূর্ণ একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর কমিশনে ভোগান্তি ও হয়রানির অভিযোগে সরগরম ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটি।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে দেখা যায়, পাসপোর্ট ও ভিসা বিভাগের দায়িত্বে থাকা ফার্স্ট সেক্রেটারি এ এফ এম ফজলে রাব্বী নামের কর্মকর্তা ভিডিও ধারণকারী ব্যক্তিকে দম্ভোক্তি করে বলছেন, আপনি পাসপোর্ট পাবেন না, আপনার পাসপোর্ট জীবনেও হবে না। আমি চাইলে পাসপোর্ট দিতেও পারি আমি চাইলে পাসপোর্ট বাতিলও করতে পারি।

আবেদনকারী যখন পাল্টা জবাব দেন আপনি কে পাসপোর্ট দেয়া না দেয়ার, আপনি কি সরকার হয়ে গেছেন- তাৎক্ষনিক প্রতিক্ষিয়ায় পাসপোর্ট অফিসার ফজলে রাব্বী দায়িত্বরত এক কর্মচারীকে আবেদনকারী ব্যাক্তির আবেদন ফিরিয়ে দেয়ার নির্দেশ দিতে দেখা যায়।

ভুক্তভোগী হোসাইন তপু আহামেদ জানান, অনলাইনে আবেদন করে মঙ্গলবার দুপুর ১২.৪৫ মিনিটে তিনি মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) আবেদনপত্র জমা দেয়ার সময় বরাদ্দ পান।

কিন্তু বেলা সাড়ে ১১টায় তাকে বলা হয় নামাজ এবং দুপুরের খাবারের বিরতির পর দুইটা/ আড়াইটার দিকে যেন আসেন। তপু বলেন, আমার বরাদ্ধকৃত সময় ১২টা ৪৫ মিনিটে আমি ২টার পরে আসব কেন? সেখানে কর্মরত এক কর্মচারী জানান, সেটাই নাকি নিয়ম।

অথবা পরের দিন আসতে বলেন। এর প্রতিবাদ করাতে রাব্বী নামের কর্মকর্তা তার রুম থেকে বের হয়ে ভুক্তভোগী তপুর আবেদনপত্র ফিরিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেন। এবং জীবনেও পাসপোর্ট পাবেন না বলে হুমকি দেন।

এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর কমিশনে ভোগান্তি ও হয়রানির অভিযোগে সরগরম ব্রিটেনের বাঙালি কমিউনিটি। চলছে সমালোচনার ঝড়ও। তাদের কারও কারও অভিযোগ, কর্মকর্তাদের কারো কাছে জবাবদিহি করতে হয় না বলেই এমন দম্ভোক্তি করতে পারেন তারা।

বাংলাদেশে হাই কমিশন থেকে শীষবিন্দু অফিসে প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়-

গত ১৯ জুন ২০১৮ তারিখে জনাব তপু আহমেদ কর্তৃক তাঁর মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট (এমআরপি) জমাদানের সময় লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাই-কমিশনে সে সময়ে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সঙ্গে সংঘটিত অনাকঙ্খিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে লন্ডনস্থ সাপ্তাহিক জনমত পত্রিকা অদ্য ২২ জুন ২০১৮ তারিখে এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশ করে।

গত ১৯ জুন ২০১৮ তারিখে উক্ত ঘটনা ঘটার পর বিষয়টি মান্যবর হাইকমিশনারের নজরে আসার সাথে সাথে তিনি বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের নিকট হতে জানতে চান এবং পরবর্তীতে তিনি হাই-কমিশনের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে বিষয়টি তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশনা দেন।

উল্লেখ্য যে, জনাব তপু আহমেদ কর্তৃক বাংলাদেশ, লন্ডন হাই-কমিশন ও বাংলাদেশের পাসপোর্ট সম্বন্ধে আপত্তিকর মন্তব্য করার পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার শব্দ চয়ন আবেদনকারীর মনঃকষ্টের কারণ হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। জনাব তপু আহমদকে বিষয়টি অবগত করার প্রচেষ্টা অত্র হাই-কমিশন থেকে নেওয়া হয়েছিল। বিষয়টি উভয়পক্ষ হতে অনভিপ্রেত ও অনাকাঙ্খিত হওয়ায় তা থেকে প্রাপ্ত শিক্ষণীয় বার্তা, অত্র হাই-কমিশন তার অধীনস্থ সকল সদস্যদের অনুসরণের যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে।

উল্লেখ্য, অত্র হাই-কমিশন প্রবাসী বাংলাদেশী/ সেবাগ্রহীতাদের যে কোন সেবা প্রদান করার জন্য অত্যন্ত আন্তরিক। যদি কোন সেবা গ্রহীতা উক্ত আন্তরিকতার মধ্যে কোন ত্রুটি বা দুর্নীতির লেশমাত্র প্রমাণ পান তাহলে তা অবগত করলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে অত্র হাই-কমিশন সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিকভাবে আশ^স্ত করছে।

#Bangladeshhighcommissionlondon #crime #power #attitude #misbehaving #shame#ShahriarAlamStateMinisterofForeignAffairsbangladesh #foreignministryofbangladesh #mrp #passport #novisarequiredbangladesh #mdshahriaralommp https://youtu.be/U_fnBkT3KCI'ভোগান্তির ওপর নাম বাংলাদেশ হাই কমিশন লন্ডন' নো ভিসা কিংবা পাসপোর্ট করতে যাওয়া মানেই এই ধরণের ঘটনার সম্মুখীন হওয়া(!) বাংলাদেশ হাই কমিশন লন্ডনে নিয়মিত ঘটে চলা কাহিনী চিত্রের একটি চিত্র…..Tag korar jonno sorry 🙏

Posted by Hussain 'topu Ahmed on Tuesday, June 19, 2018

 

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close