Featuredসিলেট থেকে

হবিবা খাতুনের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক প্রকাশ

শীর্ষবিন্দু নিউজ: সিলেট শহরের চৌকিদেখী নিবাসী মরহুম আব্দুল নূর সাহেবের সহধর্মিনী মরহুমা হবিবা খাতুন মারা যান শুক্রবার বাদ জুম্মা বিকাল ৩টা ৩০মিনিটে।

তার মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে বাংলাদেশসহ বিলেতের বিশিষ্টজন শোক প্রকাশ করেন। এজন্য মরহুমার পরিবারের পক্ষ থেকে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে দোয়া চেয়েছেন পরিবারের সদস্যবৃন্দ।

মরহুমা হবিবা খাতুন ছিলেন একজন ধর্ম ভীরু সমাজ সেবিকা। যিনি সব সময় ইসলামের কাজে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতেন। সত্তুর-আশিক দশকে তার প্রতিষ্ঠিত ইসলামী মক্তব শুরু করেছিলেন তার নিজ বাসভবন চৌকিদেখীর বাসায়। পরবর্তী তা মাদ্রাসায় রুপ নেয়। পরিবারের অনেকেই এ ব্যাপারে কোন ধরনের সাহায্য না করলেও তিনি নিজে একাই লড়াই চালিয়ে যান। তৎকালীন সময়ে একমাত্র ইসলামিক শিক্ষয়ীত্রি হিসেবে তিনি তার দায়িত্ব একান্ত নিষ্ঠা ও সাহসের সাথে চালিয়ে যান।

মরহুমার বাবার বাড়ি সিলেট শহরের আবহাওয়া অফিস সংলগ্ন সোনাতুলায়। পরবর্তীতে বিয়ে হয়ে আসেন চৌকিদেখীতে। তিনি বর্তমানে ২ ছেলে ও ১ মেয়ে, ৯ নাতি-নাতনি ও অসংখ্যা আত্নীয়স্বজন রেখে গেছেন। ধারনা মতে, মৃতুকালে তার বয়স ছিলো একশত এর কাছাকছি।

মরহুমার বড় ছেলে মরহুম আব্দুল খালিক বাবুল মারা যান ২০০৪ সালে। যিনি সিলেট বিএনপির সাথে জড়িত ছিলেন। মেজছেলে আব্দুল মালিক পুতুল সুইজ্যারল্যান্ড প্রবাসী ও অনলাইন দৈনিক শীর্ষবিন্দুর চেয়ারম্যান, ছোট ছেলে আব্দুস সালাম (সালাম মশরুর) দৈনিক জনকন্ঠের সিলেট বূর‌্যে চিফ, একমাত্র মেয়ে আজিজুন নেছাসহ পরিবারের সবাই স্বস্বক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত।

মরহুমার নামাজে জানাযা শনিবার বাদ আসর চৌকিদেখী জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এরপর চৌকিদেখী কবরস্থানে স্বামী ও বড় ছেলের কবরের পাশে সমাহিত করা হয়।

এদিকে, এক ক্ষুদে বার্তায় মরহুমার নাতনি ও শীর্ষবিন্দু সম্পাদক সুমন আহমদ জানান, আমাদের পরিবারের একমাত্র অভিভাবক ছিলেন আমার নানী যিনি আমাকেসহ আমার বোনদের লালন-পালন করে ছোটবেলা থেকে আজকের এই পর্যায়ে এনেছেন। আমাদের মা‘র চেয়েও যিনি আমাদেরকে আদর-স্নেহ-ভালবাসা দিয়ে মানুষ করে তুলেছেন। তার জন্য সবার কাছে দোয়া চাই। আল্লাহ যেন উনাকে বেহেস্ত দান করেন। আর যারা আমাকে সহানুভূতি জানিয়ে বার্তা পাঠিয়েছেন, ফোন করেছেন, আমি সবার জবাব দিতে না পারায় দু:খ প্রকাশ করছি এবং আমার নানীর মাগফেরাত চেয়ে দোয়া কাছে কামনা করছি।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close