Featuredইউরোপ জুড়ে

ড্রোন হামলা থেকে বেঁচে গেলেন ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: ভেনেজুয়েলার রাজধানী কারাকাসে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর লাইভ বক্তব্য দেয়ার সময় ড্রোন বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। তবে তিনি অক্ষতই রয়েছেন।

যোগাযোগ মন্ত্রী হোর্জে রডরিগুজ বলেছেন, মি. মাদুরোকে হত্যা করতেই ওই হামলা চালানো হয়েছিল, যাতে সাতজন সৈনিক আহত হয়েছে।

সামরিক বাহিনীর প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর ওই অনুষ্ঠানটি টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হচ্ছিল। তাতে দেখা যায়, তিনি বক্তব্য দেয়ার সময় হঠাৎ ওপরের দিকে তাকান।

এরপরই অডিও বন্ধ হয়ে যায়। সম্প্রচার বন্ধ হওয়ার আগে দেখা যায়, অনেক সৈনিক ছোটাছুটি করছেন। নেপথ্যে বিস্ফোরণের মতো শব্দও শোনা যায়।

কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট যেখানে দাঁড়িয়েছিলেন, তার ওপরে বোমা ভর্তি দুইটি ড্রোনের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

তবে কোন গ্রুপ ওই হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেনি। কিন্তু যোগাযোগ মন্ত্রী মি. রডরিগুজ হামলার জন্য ডানপন্থী বিরোধী দলকে দায়ী করেছেন।

তার বক্তব্য, ভোটে হারার পর তারা আবার এখানেও হেরেছে।এ ঘটনার পর শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে জরুরি বৈঠকে বসেছেন মি. মাদুরো।

গত বছরের জুনে একজন হেলিকপ্টার পাইলট দেশটির সুপ্রিম কোর্টে গ্রেনেড হামলা করেছিলেন। পাইলট অস্কার পেরেজ দাবি করেন, প্রেসিডেন্ট মাদুরোর বিরুদ্ধে মানুষকে জাগিয়ে তুলতে তিনি ওই হামলা করেছিলেন। এ বছর জানুয়ারিতে পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে তিনি মারা যান।

বিরোধীরা বলেন, নিকোলাস মাদুরো দেশটির বিচার বিভাগকে ব্যবহার করে বিরোধীদের দমন নির্যাতন করছেন। তবে তার সমর্থকদের দাবি, তিনি দেশকে অভ্যুত্থান থেকে রক্ষা করেছেন।

তেল সমৃদ্ধ এই দেশটিতে চরম অর্থনৈতিক মন্দার ভেতর গত মে মাসে তিনি পুনরায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close