Featuredদুনিয়া জুড়ে

ভঙ্গুর দেশ গুলোতে বহুদলীয় নির্বাচনে আরো সময় দেওয়া উচিত: ক্যামেরন

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বলেছেন, নিয়মতান্ত্রিক গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ভঙ্গুর দেশ গুলোর জন্য প্রথম প্রয়োজন টেকসই উন্নয়ন।

দুর্বল দেশগুলোতে গণতন্ত্রকে সুসংহত করার করার জন্য বহুদলীয় নির্বাচনের ক্ষেত্রে আরো সময় প্রয়োজন। ক্যামেরন মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রধান আন্তর্জাতিক প্রতিবেদক ক্রিস্টাইন আমানপোরকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেন।

ভঙ্গুর রাষ্ট্র গুলোর গণতন্ত্রকে সুসংহত করার জন্য একটি প্রতিবেদনের প্রচারণার কাজে এপ্রিল মাসে ক্যামেরন ওয়াশিংটনে আসেন। তিনি বলেন, সিরিয়া, ইরাকের মত ভঙ্গুর রাষ্ট্রগুলো বর্তমান বিশ্বে অনেক বড়ধরণের সমস্যা সৃষ্টি করছে, যেমন, চরম দরিদ্রতা, অভিবাসন, সন্ত্রাসবাদ, পাচার ইত্যাদি।

এছাড়াও এই দেশগুলো সংঘাত ও দুর্নীতিতে পর্যদুস্ত। কর্মসংস্থান ও জনগণকে সেবা প্রদানের ক্ষমতাও সরকারগুলোর প্রায় নেই বললেই চলে। ২০৩০ সালের মধ্যে এই দেশগুলোর জনগণই বিশ্বের ৫০শতাংশ জনগণে পরিণত হবে।

২০১৬ সালে পদত্যাগের পর প্রথমবারের মত সিএনএনকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি আরো বলেন, এই দেশগুলোর উন্নতির জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে মৌলিক নিরাপত্তা ও সুষ্ঠু অর্থনৈতিক ব্যবস্থা। ভঙ্গুর দেশগুলো তখনই শক্তিশালী হবে যখন, এই দেশগুলোর জনগণ তাদের সরকার ও রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো পূর্নমাত্রায় সমর্তন দেবেন।

এছাড়াও ক্যামেরন সাক্ষাতকারে পশ্চিমা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেন। ক্যামেরন বলেন, পশ্চিমাদের গণতান্ত্রিক সুধারা’কে নতুন করে আবিষ্কার করতে হবে।

এছাড়াও উগ্র ডানপন্থার মূল সমস্যা খুঁজে বের করতে হবে। যা সমগ্র বিশ্বে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে। ইউরোপজুুড়ে উগ্র জাতীয়তাবাদের উত্থানে গণতন্ত্র দুর্বল হয়ে পড়ছে বলে যখন অভিযোগ উঠেছে ঠিক তখনই এই প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হল।

যদিও পশ্চিমা গণতন্ত্র বিপদের সম্মুখীন এই ধারণাকে ক্যামেরুন উড়িয়ে দিয়েছেন। তবে তিনি এও বলেছেন উগ্রজাতীয়তাবাদীদের উত্থাণ চলতে থাকলে গণতন্ত্রে বিপর্যয় আসতেও পারে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close