Featuredজাতীয়

ভাড়ায় আনা উড়োজাহাজ নিয়ে বিপাকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

প্রতি মাসে গচ্ছা যাচ্ছে ১০ কোটি টাকা

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: মিসর থেকে ভাড়ায় আনা দুটি উড়োজাহাজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। বিমান দুটি যেন এখন গলার কাঁটা। বিকল বিমান দুটির জন্য প্রতি মাসে ভাড়া বাবদই গচ্ছা যাচ্ছে, ১০ কোটি টাকা।

এছাড়া, ইজিপ্ট এয়ারের শর্ত মানতে, উড়োজাহাজ দুটির মেরামতের খরচও দিতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। অ্যাভিয়েশন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, চুক্তিতে বাংলাদেশ বিমানের স্বার্থবিরোধী শর্ত থাকায় এই বিপত্তি। চ্যানেল ২৪।

আয় তো দূরের কথা উড়োজাহাজ দুটি নষ্ট হয়ে বিকল ছিলো দীর্ঘদিন। এখন ফেরত ও দেয়া যাচ্ছে না।

কেন না চুক্তির শর্তে বলা ছিলো, যে অবস্থায় বিমানগুলো আনা হয়েছিলো সেই অবস্থাতেই ফেরত দিতে হবে। যে কারণে ইঞ্জিনসহ কারিগরী নানা জটিলতায় এখন বসিয়ে বসিয়ে প্রতি মাসে ১০ কোটি টাকা গচ্চা দিচ্ছে বিমান কর্তৃপক্ষ। যা নিয়ে গত রোববার বলাকা ভবনে সংস্থাটির এমডির উপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন বেসামরিক বিমান প্রতিমন্ত্রী ও সচিব ।

লিজে আনা উড়োজাহাজ দুটি নিয়ে বিপাকে থাকার কথা স্বীকার করেছেন বিমান এমডি মোসাদ্দিক আহমেদ। তিনি বললেন, যাদের কাছে থেকে ভাড়ায় আনা হয়েছিলো তাদেরকে শিগগিরই এ বিষয়ে একটি প্রস্তাব দেয়া হবে।

এর আগে বেসামরিক বিমান পরিবহন সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি ভাড়ায় আনা উড়োজাহাজ দুটির পরিচালনায় অনিয়মের প্রতিবেদন দিয়েছিল মন্ত্রনালয়সহ কর্তৃপক্ষকে।

অ্যাভিয়েশেন বিশেষজ্ঞ ও বিমানের সাবেক পরিচালক নাফীস ইমতিয়াজউদ্দীন বলেন, চুক্তির সময় ফেরত দেয়ার শর্তগুলো বিমানের স্বার্থ বিরোধী ছিলো। দোষীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিলে আর এ ধরনের সমস্যায় পড়তে হবে না।

চুক্তি অনুযায়ী ৫ বছরের জন্য উড়োজাহাজ দুটি ইজিপ্ট এয়ার থেকে লিজ আনা হয়েছিলো। চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে এ বছরের শেষের দিকে। বর্তমানে মেরামতের জন্য ভিয়েতনামে আছে এই উড়োজাহাজ দুটি।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close