Featuredযুক্তরাজ্য জুড়ে

চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটে আগ্রহী নন হবু প্রধানমন্ত্রী

শীর্ষবিন্দু নিউজ: চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট চান না বলে মন্তব্য করেছেন ব্রিটেন প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের দৌঁড়ে শীর্ষে থাকা বরিস জনসন।

তিনি বলেন, চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট যাতে না হয় এটি নিয়ে আমি সতর্ক, তবে ব্রিটেনকে ব্রেক্সিটের ফলাফল অবশ্যই পেতে হবে। তাই ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ব্রিটেনকে ইউরোপিয় ইউনিয়ন থেকে বের করে আনতে চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের জন্য আমি প্রস্তুত। বিবিসি, রয়টার্স

ব্রেক্সিট সংকট নিয়ে ইতোমধ্যেই তিন বছর পার করেছে ব্রিটেন। চুক্তি হোক বা না হোক ইইউ থেকে বের হয়ে যাওয়ার বিষয়ে জনসন ও আরেক প্রার্থী জেরেমি হান্টের বার্তা এই সংকটকে আরো গভীর করেছে। চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট মানে কোন অন্তবর্তীকালীন সময় থাকবে না। যা ব্যবসায়ীদের জন্য দুঃস্বপ্ন।

মঙ্গলবার ব্রিটেনের গাড়ি শিল্প ব্যবসায়ীরা পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীকে চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিটের বিষয়ে সতর্ক করেছেন। তারা এটিকে ভূমিকম্পের সঙ্গে তুলনা করেন। তারা বলেছেন, এটি হাজার কোটি ডলার শুল্ক, সীমান্ত বিড়ম্বনা ডেকে আনাসহ এই খাতকে ঝুঁকির মুখে ফেলে দেবে।

ব্রিটেনের অটোমোটিভ শিল্প ব্যবসায়ীরা বলছেন, এটি ১০ ভাগ শুল্ক বৃদ্ধি করবে, কঠোর ব্রেক্সিট সীমান্তে বিলম্বের ঝুঁকি ডেক আনবে যার ফলে মিনিটে ব্যয় হবে ৫০ হাজার পাউন্ড।

এদিকে লন্ডনের সাবেক মেয়র ও সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনসন বলছেন, আইরিশ সীমান্তে কঠোরতা ও বাণিজ্য শুল্ক এড়াতে তিনি থেরেসা মে’র চুক্তির পরিবর্তে ইইউ’কে একটি নতুন চুক্তিতে আসতে রাজি করানোর চেষ্টা করবেন।

এই সময় তিনি বলেন, ব্রেক্সিটের পর ব্রিটেনের ওপর ইইউ’র যে কোন ধরণের বাণিজ্য শুল্কারোপ হবে নেপোলিয়ান যুগের মহাদেশীয় ব্যবস্থাপনা। প্রসঙ্গত, ১৯শতকের যুদ্ধের সময় নেপোলিয়ন বোনাপার্ট ব্রিটিশ অর্থনীতিকে বিকল করার জন্য অবরোধ হিসেবে ‘মহাদেশীয় ব্যবস্থাপনা’ চালু করেন।

যদিও ইইউ বলে দিয়েছে, তারা মে’র সঙ্গে স্বাক্ষরকৃত নভেম্বরের চুক্তি থেকে একচুলও সরে আসবে না। যুক্তরাজ্যভুক্ত উত্তর আয়ারল্যান্ডও বলেছে, তারা আয়ারল্যান্ডে সীমান্ত নিয়ে থেরেসার নমনীয় নীতি থেকে সরবে না।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close