Featuredইউরোপ জুড়ে

ইউরোপের তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি: তীব্র তাপদাহে বিপর্যস্ত

শীর্ষবিন্দু নিউজ ডেস্ক: প্রচণ্ড তাপদাহে বিপর্যস্ত ইউরোপের জনজীবন। ইতিমধ্যে মহাদেশটির বেশকিছু অঞ্চলে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়েছে। জার্মানি, পোল্যান্ড ও চেক রিপাবলিকে সর্বকালের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

উত্তর আফ্রিকার সাহারা মরুভূমি থেকে আসা তাপ প্রবাহে আগামী কয়েকদিনেই এই তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফলে ইউরোপের দেশগুলোতে জারি করা হয়েছে উচ্চ সতর্কতা।

গরমের তীব্রতায় ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফ্রান্স সরকার। স্পেনের বনাঞ্চলে ঘটেছে বেশ কয়েকটি আগুন লাগার ঘটনা। বুধবার থেকে সেখানে বনে আগুন নেভাতে কাজ করছেন শত শত দমকলকর্মী ও সেনাসদস্য।

একইসঙ্গে আকাশ থেকে অনবরত বিমান থেকে জল ঢালা হচ্ছে সেখানে। কিন্তু তাতেও নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না আগুন। এদিকে জার্মানিতে শুরু হয়েছে প্রকাশ্যে নগ্ন হয়ে চলাফেরা করার সুযোগ নিয়ে বিতর্ক। এরই মধ্যে তীব্র গরমে মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। এখন পর্যন্ত এমন তিনটি মৃত্যু নিশ্চিত হওয়া গেছে।

আবহাওয়াবিদরা সতর্ক করে দিয়ে জানিয়েছেন, আগামী শুক্র ও শনিবার থেকে ফ্রান্স, সেপন ও গ্রিসের জনজীবন গরমে বিপর্যস্ত হয়ে উঠবে। স্প্যানিশ আবহাওয়া সংবাদ পরিবেশক এই অবস্থাকে দোজখের সঙ্গে তুলনা করে বলেছেন, ‘হেল ইজ কামিং’।

ফ্রান্সে তাপমাত্রা মাপা ও তথ্য সংরক্ষণ শুরু হয় ১৯৪৭ সাল থেকে। এবছরই এই রেকর্ডের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। দেশটির ৩ ভাগের ২ ভাগ স্থানেই গরমের তীব্রতা ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছে। প্যারিস ও লিওনের স্কুলগুলো বৃহসপতিবার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এছাড়া, যান চলাচল সীমাবদ্ধ করে দেয়া হয়েছে যাতে বাতাস কিছুটা ঠাণ্ডা থাকে। ২০০৩ সালের পর থেকে দেশটিতে প্রচণ্ড গরমে অন্তত ১৫ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। টেলিভিশন ও রেডিও চ্যানেলগুলো অনবরত সতর্ক বার্তা প্রচার করছে। একই অবস্থা বিরাজ করছে গ্রিসেও। সেখানে শিগগিরই তাপমাত্রা ৪৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে, প্রচণ্ড এই গরমের জন্য বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধিকে দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা। তেল ও গ্যাসের ব্যবহার বিশ্বব্যাপী বেড়ে যাওয়ায় এই গরম ক্রমশ বেড়ে চলেছে বলে মনে করেন প্রায় সকলেই।

রিডিং বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞানের প্রফেসর লেন শ্যাফ্রি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে প্রতিনিয়ত বিশ্বের তাপমাত্রা বেড়ে চলেছে। এখন যে সব প্রবণতা দেখা যাচ্ছে তাতে সপষ্ট যে, সামনে এই ধরনের তাপদাহ অহরহ আসতেই থাকবে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close