Featuredযুক্তরাষ্ট্র জুড়ে

মার্কিন বন্দিশালা পছন্দ না হলে যুক্তরাষ্ট্রে যেতে মানা

শীর্ষবিন্দু আন্তর্জাতিক নিউজ ডেস্ক: মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন অবৈধ অভিবাসীদের সঙ্গে যে আচরণ করছে সে বিষয়ে নানা সমালোচনার জবাবে ট্রাম্প বলেছেন, অবৈধ লোকজনের জন্য এখানে যে বন্দিশালা অপেক্ষা করছে তা পছন্দ না হলে তাদের যুক্তরাষ্ট্রে আসার দরকার নেই।

তিনি বলেন, মার্কিন সীমান্টে আটক কেন্দ্রগুলোতে অভিবাসীরা নিজ দেশের চেয়ে ভাল আছেন। সিএনএন/বিবিসি/ পারস

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিরোধী ডেমোক্রাট সদস্য ও মানবাধিকার সংস্থার লোকজন মেক্সিকো সীমান্তে কয়েকটি বন্দিশিবির পরিদর্শনের পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করেছেন। এসব বন্দিশিবিরে লোকজনকে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে এবং ধারণক্ষমতার চেয়ে বেশি লোক রাখা হয়েছে। সেখানে পর্যাপ্ত খাদ্য ও পানিসহ মৌলিক জিনিসপত্রের ব্যবস্থা নেই।

এ প্রসঙ্গে ট্রাম্প বুধবার তার টুইটার পোস্টে বলেছেন, যদি অবৈধ অভিবাসীদের এ অবস্থা ভালো না লাগে তাহলে তাদেরকে বলে দিন যে, তারা যেন না আসে। সব সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, আমাদের সীমান্তরক্ষীরা হাসপাতাল কর্মচারি, ডাক্তার অথবা নার্স নয়। তারা সীমান্তে তাদের দায়িত্ব খুব ভালোভাবে পালন করছে। অবৈধ লোকজন বন্দিশালায় যে পরিবেশে আছে তার চেয়ে তারা তাদের দেশে ভালো ছিল না।

একদিন আগে ট্রাম্প প্রশাসনের এক প্রতিবেদনে বলা হয় আটক কেন্দ্রগুলোতে গরম খাবার খেতে চাচ্ছে না বা গোসল করতে অনীহা দেখাচ্ছে। এছাড়া আটককেন্দ্র অভিবাসীদের দিয়ে পরিপূর্ণ হয়ে ওঠায় তারা সেখান থেকে মুক্তি চাচ্ছে।

ডেমোক্রেট রাজনীতিকরা টেক্সাসে ওসব আটক কেন্দ্র পরিদর্শনের পর অভিযোগ করেন যে অভিবাসীদের টয়লেটের পানি খেতে বাধ্য করা হচ্ছে। ৪০ জন পুরুষের জন্যে নির্মিত শেডে রাখা হয়েছে ৫১ জন এবং ৪১ জন নারীর জন্যে নির্মিত শেডে রাখা হয়েছে ৭১ জনকে।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close