Featuredযুক্তরাজ্য জুড়ে

যুক্তরাজ্যে করোনায় আক্রান্ত একদিনেই বেড়েছে ৬১৭৮

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন: গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৬১৭৮ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সন্ধান মিলেছে যুক্তরাজ্যে। এটি দেশটির তৃতীয় সর্বোচ্চ দৈনিক রোগী বৃদ্ধির সংখ্যা।

যুক্তরাজ্যে লকডাউন শুরু হওয়ার ৬ মাস পর বর্তমানে ৪ লাখ ৯ হাজার ৭২৯ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। কয়েক মাস ধরে দৈনিক রোগী সনাক্তের হার কমে আসার পর এবার শুরু হয়েছে দ্বিতীয় ওয়েভ। বৃটেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ খবর দিয়েছে ডেইলি মিরর।

দ্বিতীয় দফায় পুরোদমে লকডাউন আরোপ না করে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের পথ খুঁজছে সরকার। তবে এই সপ্তাহেই প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন নতুন কয়েকটি লকডাউন সংক্রান্ত পদক্ষেপ ঘোষণা করেছেন। নতুন ঘোষিত পদক্ষেপের আওতায় আর ৬ মাস লকডাউন আরোপ হতে পারে। করোনাভাইরাস টিকার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ কোন অগ্রগতি দেখা দিলে অবশ্য এই বিধিনিষেধ শিথিল করা হবে তার আগেই।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে ১০টার মধ্যে পানশালা ও রেস্তোরাঁ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সোমবার থেকে খুচরা দোকানের কর্মীরা বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরবেন। রেস্তোরাঁ ও পানশালায় খাবার গ্রহণের সময় ছাড়া অন্যসময় গ্রাহকরাও মাস্ক পরবেন।

এর আগে লাখ লাখ মানুষকে কর্মস্থলে ফেরানোর যে পরিকল্পনা নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী বরিস, সে উদ্যোগ তিনি বাতিল করতে বাধ্য হন। নতুন করে ভাইরাস সংক্রমণের মুখে তিনি জনগণকে পারতপক্ষে বাসা থেকে বের না হওয়ার আহবান জানিয়েছেন। বিয়ের মতো অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ ১৫ জনের বেশি অংশগ্রহণ করতে পারবেন না বলে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। আগে এই সংখ্যা ছিল ৩০। বাইরে বা ঘরের ভেতরে সর্বোচ্চ ৬ জন মানুষ পাশাপাশি থাকতে পারবেন।

তবে বার্মিংহ্যাম, ম্যানচেস্টার, নিউক্যাসল ও লিভারপুলে শহর কর্তৃপক্ষ লকডাউন ঘোষণা করেছে। সেসব শহরে বাইরে বের হয়ে কারো সঙ্গে সাক্ষাৎ করা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মাস্ক না পরলে বা ৬ জনের বেশি জমায়েত হলে ২০০ পাউন্ড জরিমানা ও নিজেকে আইসোলেট করতে ব্যর্থ হলে সর্বোচ্চ ১০ হাজার পাউন্ড জরিমানার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাজ্যজুড়ে ৩৭ জন মারা গেছেন। আগের দিন সমসংখ্যক রোগী মারা যান। এ নিয়ে দেশটিতে মোট ৪১,৮৬২ জন কোভিড আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এ সম্পর্কিত অন্যান্য সংবাদ

ডিজাইন ও ডেভেলপমেন্ট করেছে সাইন সফট লিমিটেড
Close