মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৫:৩১

কোন টিকা কতটা কার্যকর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ঠেকাতে?

কোন টিকা কতটা কার্যকর ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ঠেকাতে?

শীর্ষবিন্দু আর্ন্তজাতিক নিউজ: / ৭৩
প্রকাশ কাল: বুধবার, ৭ জুলাই, ২০২১

ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে বিশ্বে উদ্বেগ বাড়ছে। করোনার  করোনাভাইরাস বারবার তার রূপ বদলে নতুন নতুন চেহারায় হাজির হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় করোনার অন্যতম রূপান্তর ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট’ পৃথিবীর উল্লেখযোগ্য অংশের মানুষকে আতঙ্কিত করে তুলেছে।

এ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের উৎপত্তিস্থল ভারতে। ভারতে উৎপত্তি হলেও বর্তমানে এ ভ্যারিয়েন্ট পৃথিবীর প্রায় ৮০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এ পর্যন্ত কালের সবচেয়ে শক্তিশালী করোনাভাইরাস।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরিচালক ড. টেড্রোস আধানম গেবরিয়াসুস শনিবার বলেন, কমপক্ষে ৯৮ দেশে ভারতে প্রথম শনাক্ত করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, ভ্যারিয়েন্টটি অত্যন্ত বিপজ্জনক। এটির কাঠামোগত ও চারিত্রিক রূপান্তর ঘটে চলেছে।

এ ধরন মোকাবিলায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেছেন- ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্টের হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে অবশ্যই টিকা নিতে হবে। কারণ, দেখা গেছে টিকা না নেওয়া মানুষের ভেতরই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট ছড়াচ্ছে বেশি।

ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ মনিকা গান্ধীকে উদ্ধৃত করে ব্লুমবার্গ লিখেছে, যেসব টিকা এ পর্যন্ত অনুমোদন পেয়েছে, তার সবগুলোই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কার্যকারিতা দেখিয়েছে। কিছু ক্ষেত্রে হয়ত দেখা গেছে টিকা দেওয়ার পরও মানুষ সংক্রমিত হয়েছে, তবে তাদের ক্ষেত্রে উপসর্গ ও অসুস্থতার মাত্রা অনেকটাই কম।

আজ আমরা জেনে নিবো ‘ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের’ বিরুদ্ধে কোন টিকা কতটা কার্যকর?

ফাইজারবায়োএনটেক

ইংল্যান্ডের পাবলিক হেলথ এপ্রিল থেকে জুনে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত ১৪ হাজার রোগীর ওপর গবেষণা চালিয়ে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার কার্যকারিতা পরীক্ষা করে।

গত ১৪ জুন তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যের বরাতে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, যারা ফাইজারের একটি ডোজ নিয়েছেন, চার সপ্তাহ পর দেখা গেছে, তাদের ৩৬ শতাংশের ক্ষেত্রে এ টিকা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে কার্যকর সুরক্ষা দিতে পেরেছে। দুই ডোজের পর তা বেড়ে ৮৮ শতাংশ হয়েছে।

তবে ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকা করোনাভাইরাসের অন্য ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে ৯৫ শতাংশ কার্যকারিতা দেখিয়েছিল।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা

পাবলিক হেলথ ইংল্যান্ডের গবেষণার বরাত দিয়ে গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার এক ডোজ ‘ডেল্টা ধরনের’ বিরুদ্ধে ৩০ শতাংশ কার্যকারিতা দেখিয়েছে। আর দুই ডোজ নেওয়া ব্যক্তিদের ৬৭ শতাংশের ক্ষেত্রে এই টিকা সুরক্ষা দিতে পেরেছে।

বাংলাদেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি টিকা দিয়েই গণ টিকাদান শুরু হয়েছিল। ঢাকা মেডিকেল কলেজের শিক্ষক, চিকিৎসক এবং কর্মচারীদের মধ্যে যারা এই টিকার দুটি ডোজ নিয়েছেন, তাদের ৯৩ শতাংশের মধ্যে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

মডার্না

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে দেখা গিয়েছিল মডার্নার টিকা ৯৪.১ শতাংশ ক্ষেত্রে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর সুরক্ষা দিতে পেরেছে। তবে তখনও ডেল্টা ধরনের উদ্ভব হয়নি। মডার্নার টিকাও ফাইজার-বায়োএনটেকের টিকার মত একই পদ্ধতিতে তৈরি।

যুক্তরাষ্ট্রের সিডিসির এক গবেষণার বরাত দিয়ে এনবিসি বস্টনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মর্ডানার টিকার এক ডোজ ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে ৮০ শতাংশ এবং দুই ডোজ ৯০ শতাংশ পর্যন্ত সুরক্ষা দিতে পারে। মডার্না বলেছে, তাদের টিকা ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরির ক্ষেত্রে বেটা ভ্যারিয়েন্টের চেয়েও ভালো ফল দেখিয়েছে।

জনসন অ্যান্ড জনসন

জনসন অ্যান্ড জনসন (জেঅ্যান্ডজে) সম্প্রতি জানিয়েছে, তাদের এক ডোজের টিকা অতি সংক্রামক ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধেও কার্যকর এবং টিকা নেওয়ার পর আট মাস পর্যন্ত এর কার্যকারিতা থাকে।

সাম্প্রতিক দুটি গবেষণা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে জনসন অ্যান্ড জনসন বলেছে, ভাইরাসের মূল ধরনটির বিরুদ্ধে তাদের টিকা যতটা কার্যকর, তার চেয়ে ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধে সামান্য কম কার্যকর। তবে সাউথ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া বেটা ধরনের চেয়ে ভারতে শনাক্ত ডেল্টা ধরনের বিরুদ্ধে এ টিকা বেশি কার্যকর।

ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ৮৫ শতাংশ কার্যকারিতা দেখিয়েছিল জনসনের টিকা। তবে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ক্ষেত্রে এর কার্যকারিতা কত শতাংশ থাকে, সেই সুনির্দিষ্ট তথ্য এখন ও তারা প্রকাশ করেনি।

স্পুৎনিক ভি

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রথম টিকা তৈরির ঘোষণা দিয়েছিল রাশিয়া, তাদের সেই টিকার নাম স্পুৎনিক ভি। মস্কোর গামালিয়া ইনস্টিটিউটের তৈরি করা ওই টিকা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে ৯১ শতাংশ কার্যকারিতা দেখিয়েছিল।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে এ টিকার কার্যকারিতা নিয়ে স্বাধীন কোনো গবেষণা এখনও প্রকাশিত হয়নি। তবে গামালিয়া ইনস্টিটিউট জুনের শেষে দাবি করেছে, করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ওই ধরনটির বিরুদ্ধেও তাদের টিকা ৯০ শতাংশের মত কার্যকারিতা দেখিয়েছে।

চীনের তিন টিকা

করোনাভাইরাসের কোন ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে চীনের কোন টিকা কতটা কার্যকর সে বিষয়ে বড় কোনো গবেষণার বিস্তারিত তথ্য এখনও প্রকাশ করেনি দেশটি। সে কারণে বিষয়টি নিয়ে এক ধরনের অস্পষ্টতা রয়েছে। তবে চীনা বিশেষজ্ঞরা দাবি করে আসছেন,  ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধেও তাদের তৈরি টিকাগুলো কার্যকর এবং গুরুতর অসুস্থতা ঠেকাতে সক্ষম। চীনা সংক্রামক ব্যাধি বিশেষজ্ঞা জং নানশানকে উদ্ধৃত করে রয়টার্স এক প্রতিবেদনে বলেছে, যে গবেষণার ভিত্তিতে তারা কার্যকারিতার কথা বলছেন, তা এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2021