বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০৫:১৪

হেফাজতের অর্থদাতাদের খোঁজে মাঠে নেমেছে গোয়েন্দারা

হেফাজতের অর্থদাতাদের খোঁজে মাঠে নেমেছে গোয়েন্দারা

এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

শীর্ষবিন্দু নিউজ, ঢাকা: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতা করে গত মাসে হেফাজতের বিক্ষোভ-হরতালে নাশকতার ঘটনার মামলায় পুলিশ সংগঠনটির ডজন খানেক কেন্দ্রীয় নেতাকে গ্রেফতার করেছে।

এবার হেফাজতে ইসলামের দেশীয় অর্থদাতাদের খোঁজে নেমেছেন গোয়েন্দারা। এখন পর্যন্ত যে ৩১৩ জন অর্থদাতা চিহ্নিত হয়েছে তার মধ্যে দেশি কতজন, তাদের মধ্যে কে কোথায় আছেন তাদের খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

গত বুধবার রাজধানীর ভাটারা থানা এলাকার ওয়াসা মোড় থেকে কাশেমীকে এবং ডেমরা থেকে হাবিবীকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ। পল্টন থানার মামলায় তাদের আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেছিল গোয়েন্দা পুলিশ। তবে শুনানি শেষে বিচারক তিন দিন রিমান্ডের আদেশ দেন।

এদিকে পল্টন থানার আরেক মামলায় হেফাজতের সদ্য বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকে ফের তিনদিনের জন্য রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। গত ২২ এপ্রিল খালিদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকে মানিকগঞ্জে তার গ্রামের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে ৫ দিনের জন্য রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল পুলিশ।

২৬ মার্চ থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ধারাবাহিক সহিংসতার ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের সংশ্লিষ্ট নেতাদের পর্যায়ক্রমে গ্রেফতার করা হচ্ছে। সম্প্রতি নাশকতার অভিযোগে ঢাকাসহ সারাদেশে বেশকিছু মামলাও হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় ১২টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এছাড়া ২০১৩ সালে হেফাজতের শাপলা চত্বরে সমাবেশকে কেন্দ্র করে সহিংসতা ও নাশকতার ঘটনায় মোট ৫৩টি মামলা দায়ের হয়। হেফাজতের বিরুদ্ধে মোট ৬৪টি মামলা তদন্তাধীন আছে। এ পর্যন্ত হেফাজতে ইসলামের ১৬ জন কেন্দ্রীয় নেতাকে গ্রেফতার করেছে ডিএমপি। এরই মধ্যে রবিবার হেফাজতের কেন্দ্রীয় কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।

একজন গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, কয়েকজন দেশীয় অর্থদাতার নাম তারা পেয়েছেন। এখন সেগুলো যাচাই বাছাই করা হচ্ছে। এই তালিকার মধ্যে অন্তত দুইজন রাজনৈতিক দলের ঊর্ধ্বতন নেতাও রয়েছেন।

হেফাজত নেতাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছেন এমন একজন গোয়েন্দা কর্মকর্তা বলেন, এখন পর্যন্ত হেফাজতের অর্থের যোগানদাতা হিসেবে ৩১৩ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। হেফাজতে ইসলামের সদ্য বিলুপ্ত হওয়া কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৬ কোটি টাকার লেনদেনের তথ্য পাওয়া গেছে। পাশাপাশি তার দুই ভাইয়ের একাউন্টেও বিপুল সংখ্যক অর্থের লেনদেন হয়েছে। এই অর্থ তাদের কে দিয়েছে, সেই বিষয়ে অনুসন্ধান চলছে। খুব সহসাই দেশীয় অর্থদাতাদের কয়েকজনকে ধরা হবে।


এখানে শেয়ার বোতাম
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  






পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com