বৃহস্পতিবার, ০৫ অগাস্ট ২০২১, ১২:২৬

ব্রিটেনে প্রতিদিন শনাক্তের সংখ্যা এক লাখে পৌঁছাবে জুলাই মাসে

ব্রিটেনে প্রতিদিন শনাক্তের সংখ্যা এক লাখে পৌঁছাবে জুলাই মাসে

/ ২৩৫
প্রকাশ কাল: সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন: ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা হুঁশিয়ারি বার্তা দিয়ে বলেছেন, আগামী মাসেই ব্রিটেনে প্রতিদিন কোভিড শনাক্তের সংখ্যা এক লাখে পৌঁছাতে পারে। ব্রিটিশ নিউজ মিররের খবরে বলা হয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এরইমধ্যে দেশটিতে হাসপাতালে ভর্তির হার বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। একইসঙ্গে আগামি ২১ জুন কোভিড নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া নিয়ে আগের তুলনায় কম আশাবাদী বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এরফলে কোভিড নিয়ে জারি থাকা নানা কড়াকড়ি এ মাসেও উঠছে না বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অপিনিয়ামের এক জরিপে জানা গেছে, ৫৪ শতাংশ ব্রিটিশই এখন কড়াকড়ি বৃদ্ধির পক্ষে। বিপক্ষে রয়েছে ৩৭ শতাংশ। মিররের খবরে বলা হয়েছে, ব্রিটেনে শনাক্ত হওয়া ৯০ শতাংশ সংক্রমণই ভারতীয় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের। প্রতি ৯ দিনে এই সংক্রমণ দ্বিগুন হচ্ছে। সংক্রমণ যত বাড়বে ততো ভ্যাকসিন প্রতিরোধী মিউটেশনের ঝুঁকি বাড়বে।

২১ জুনের পর ব্রিটেনে থাকা সকল কোভিড নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার কথা ছিল। এটি হলে সামাজিক যোগাযোগ বৃদ্ধির সুযোগ সৃষ্টি হতো। ক্লাব, বার, থিয়েটার ও সিনেমা হলগুলোতে থাকা নানা কড়াকড়ি দূর হতো। খুলে যেতো নাইটক্লাবগুলো। এছাড়া বিয়ের অনুষ্ঠানে অতিথির সংখ্যা নিয়েও কোনো নিয়ম থাকতো না। তবে এখন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের কারণে এই পরিকল্পনা ঝুঁকির মুখে পড়েছে। মন্ত্রীসভার কোভিড অপারেশনস কমিটি সোমবার সিদ্ধান্ত জানাবে।

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের প্রফেসর অ্যান্থনি কস্টেলো বলেন, এক মাসের মধ্যেই প্রতিদিন শনাক্তের সংখ্যা এক লাখে পৌঁছাবে। শ্যাডো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিক থমাস-সিমন্ডস বলেন, আর কোনো দেরি হলে সেটি অনেকগুলো পরিবার ও ব্যবসার জন্য বড় ক্ষতির কারণ হবে। মন্ত্রীদের ওপর এই ভুলের দায় বর্তায়। সীমান্ত নিয়ে তাদের বেপরোয়া নীতির কারণে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এখন ব্রিটেনে পৌঁছেছে এবং ছড়াচ্ছে। যদি এ হারে সংক্রমণ বাড়তে থাকে, তাহলে একদিনে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা ২ হাজারে পৌঁছাবে।

ব্রিটিশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশনের প্রধান ড. চাঁদ নাগপাল বলেন, এটি শুধু হাসপাতালে ভর্তিরই বিষয় নয়। এই কোভিডের কারণে তরুণ প্রজন্মও ঝুঁকিতে রয়েছে। তাদেরকে দীর্ঘ সময় ধরে নানা উপসর্গে ভুগতে হতে পারে।

তবে দেশটিতে ব্যাপক হারে ভ্যাকসিন গ্রহণের কারণে কোভিড আক্রান্ত হলেও মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হচ্ছে না। তবে এখন যত মানুষ হাসপাতাল ছাড়ছেন তার থেকে বেশি মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। তাছাড়া, দেশের ৫৫ শতাংশ এখনো ভ্যাকসিনের পূর্ণ ডোজের আওতায় আসেনি। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট মূলত ভারত থেকে ছড়িয়ে পরা করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট। এটি সাধারণ করোনার থেকে ৬০ শতাংশ অধিক সংক্রমিত হয়। ফাইজার ও অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের এক ডোজ মাত্র ৩৩ শতাংশ সুরক্ষা দেয় এই ভ্যারিয়েন্টের বিরুদ্ধে।

জরুরি পরিস্থিতিতে বৃটিশ সরকারকে পরামর্শ দেয়া সংস্থা সেইজের বিজ্ঞানীরা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, স্কুলগুলোকে অবশ্যই মাস্ক বাধ্যতামূলক করতে হবে। দেশটিতে বর্তমানে ১ লাখ ৩৬ হাজার শিক্ষার্থী স্কুলে অনুপস্থিত রয়েছে। এর কারণ, তারা হয় কোভিডে আক্রান্ত হয়েছে কিংবা কোভিড আক্রান্ত কারো সংস্পর্শে এসেছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2021