শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৭

বজ্রপাত ও টানা ভারী বৃষ্টিপাতে হঠাৎ প্লাবিত লন্ডন শহর (ভিডিও)

বজ্রপাত ও টানা ভারী বৃষ্টিপাতে হঠাৎ প্লাবিত লন্ডন শহর (ভিডিও)

সুমন আহমেদ, লন্ডন / ৩৮১
প্রকাশ কাল: সোমবার, ২৬ জুলাই, ২০২১

ব্রিটেনে এখন চলছে বাৎসরিক সামার হলিডে। এ সময় স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকায় দেশটির সাধারণ জনগণ এই ছুটির সময় বিভিন্নভাবে নিজেদের সময়টাকে উপভোগ করে থাকেন। এরইমধ্যে লন্ডন শহরে টানা ভারী বৃষ্টিপাতে ও বজ্রপাতে লন্ডন শহর প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রবিবার ছুটির দিনে প্রচুর মানুষ রাস্থায় বের হয়ে ভূগান্তিতে পড়েন।।

সোস্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, টানা ভারী বৃষ্টিপাতে ব্যাপক জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। প্রবল বৃষ্টি`র মধ্যে বজ্রপাতের কারণে মানুষের মধ্যে আতংক দেখা দেয়। রবিবার স্থানীয় সময় দুপুর ২ টার পর থেকে বিকাল আনুমানিক ৫ টা পযন্ত মুষলধারে বৃষ্টিতে লন্ডন শহরের অধিকাংশ রাস্থা তলিয়ে যায়। প্রায় সড়কে হাঁটু পযন্ত জলাবদ্ধতা তৈরি হয়। এমন পরিস্থিতিতে প্রায় জায়গায় বন্ধ হয়ে যায় যানবাহন চলাচল। যার ফলে দীর্ঘ জানজটের সৃষ্টি হয় রাস্থায়। ঘন্টার পর ঘন্টা রাস্থায় যানবাহন দাড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

অবশ্য এর আগে গত সোমবার দেশটির আবহাওয়া অফিস ইংল্যান্ডে ঝড় ও বজ্রপাতের সতর্কতা জারি করেছিলো। গত রবিবার সাউথ ইষ্ট লন্ডনে ৭৫ থেকে ১ শত মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। প্রচুর বৃষ্টির কারণে ভূগর্ভস্থ লাইন ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় লন্ডনে ভারী বৃষ্টিপাত হয়েছে। এতে ইস্ট লন্ডনস হুইপস ক্রস ও নিউহ্যাম হাসপাতালে পানি ঢুকেছে। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে হাসপাতালের বিদ্যুৎ সংযোগেও। হুইপস ক্রস ও নিউহ্যাম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তাদের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি থাকা রোগীদের ইতিমধ্যে অন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর নতুন যে রোগীরা আসছেন তাদের ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

টুইটারে নিউহ্যাম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভর্তি হতে আসা রোগীদের উদ্দেশে বলেছে, প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় রোগীদের অন্যান্য হাসপাতালে স্থানান্তর করা হচ্ছে। পরিস্থিতি ঠিক না হলে চিকিৎসা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এ জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। প্রায় একই টুইট করে ক্ষমা চেয়েছে ইস্ট লন্ডনস হুইপস ক্রস হাসপাতালও।

শহরের ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রবিবার থেকে আজ সোমবার পর্যন্ত লন্ডনের বিভিন্ন এলাকা থেকে সহায়তা চেয়ে এক হাজারের বেশি ফোনকল এসেছে।

দেশটির ফায়ার ব্রিগেড জানিয়েছে, বৃষ্টি চলাকালীন সময়ে প্রায় ৩ শত ফোন কল তারা রিসিভ করেছে। যার মধ্যে বেশ কয়েকটি প্লাবিত বেসমেন্ট রয়েছে। বারকিংয়ে যানচলাচল স্বাভাবিক রাখতে বৃষ্টির মধ্যে ফায়ার সার্ভিসকে কাজ করতে দেখা গেছে। বিভিন্ন ট্রেন স্টেশনে পানি জমে থাকার কারণে যাত্রীরা আটকা পড়েন। কর্মকর্তারা বিপজ্জনক পরিস্থিতিতে ভ্রমন থেকে বিরত থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন।

 




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © shirshobindu.com 2021