মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৪২

ব্রিটেনে লকডাউন শিথিলের পর বিক্রি বেড়েছে বিলাসবহুল জিনিসপত্রের

ব্রিটেনে লকডাউন শিথিলের পর বিক্রি বেড়েছে বিলাসবহুল জিনিসপত্রের

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ২৬১
প্রকাশ কাল: বুধবার, ১১ আগস্ট, ২০২১

ব্রিটেনে দীর্ঘদিন লকডাউনে ঘরে অবরুদ্ধ হয়ে থাকা ব্রিটিশরা যে সঞ্চয় করেছেন, তা দিয়ে দামী জিনিসপত্র কিনতে ব্যয় করছেন। এ খবর দিয়ে ব্রিটিশ অনলাইন গার্ডিয়ান।

অনলাইন গার্ডিয়ান বলেছে, ব্রিটেনে বিলাসবহুল ঘড়ির বিক্রি বেড়েছে। শুধু ঘড়িই নয়, স্বর্ণালংকার বিক্রিও বেড়েছে। আয়োজন চলছে বিয়ের। তাই এনগেজমেন্টের দামি আংটি কেনার ধুম পড়ে গেছে। করোনা মহামারির আগে যে পরিমাণ বিক্রি হতো তার চেয়ে শতকরা ৪৩ ভাগ বেশি বিক্রি হচ্ছে রোলেক্স এবং ওমেগা ঘড়ি।

১লা আগস্ট পর্যন্ত ১৩ সপ্তাহে এই বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। রোলেক্স এবং ওমেগা সুইজারল্যান্ডে তৈরি ঘড়ি। এর চাহিদা বিশ্বজুড়ে। তেমনই আবেদন ব্রিটেনেও। যুক্তরাষ্ট্রেও বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে এরই মধ্যে। তবে ব্রিটেনে বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে প্রভূত। এর ফলে এসব ঘড়ির এক বছরের সঙ্গে অন্য বছরের বিক্রি দ্বিগুণের বেশি বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে ২৯ কোটি ৭৫ লাখ পাউন্ড।

লেস্টারশায়ারভিত্তিক কোম্পানিটির খুচরা বিক্রেতা বিষয়ক প্রধান নির্বাহী ব্রায়ান ডাফি বলেছেন, ব্রিটেনে পর্যটকদের আনাগোনা এবং স্টোরে ক্রেতার সংখ্যা কম হওয়া সত্ত্বেও বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। ব্রিটেনে বৈদেশিক পর্যটকদের কাছে বিক্রি হয়েছে শতকরা মাত্র ৭ ভাগ। কিন্তু ২০১৯ সালে এই পরিমাণটা ছিল শতকরা ৩০ ভাগ। তিনি আরো বলেন, মানুষজন কেনাকাটা, বেড়ানো, ভ্রমণসহ বিভিন্ন প্রয়োজনে অর্থ জমা করেন। কিন্তু লকডাউন থাকার ফলে এসব খাতে তারা অর্থ খরচ করতে পারেননি। ফলে সেই অর্থ দিয়ে পণ্য কিনছেন। তাই তাদের সেই কেনাকাটার একটি ভাগ পাচ্ছি আমরা। এটা আমাদের পাওয়ার চেয়েও বেশি। আমরা একটি কঠিন সময় সামনে রেখে বাজারজাতকরণে অর্থ বিনিয়োগ করেছি। প্রশিক্ষণ দিয়েছি স্টাফদের। গড়ে তুলেছি মজুদ।

ডাফি বলেন, স্টাফরা মনে করেন ক্রেতাদের মধ্যে বেশির ভাগই নারী। তারা কিনছেন বেশি থেকে বেশি উপহার সামগ্রী। অন্যদিকে নিজেদের জন্য কিনছেন স্বর্ণালংকার। তিনি বলেন, কার্টিয়ে এবং রোলেক্স ঘড়ির বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে বেশি। ওমেগাও কম যাচ্ছে না। অলিম্পিকে স্পন্সর করার কারণে ওমেগা কিছুটা সুবিধা পেয়েছে। সামাজিক আচার অনুষ্ঠানে আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিল করা হয়েছে। ফলে বিয়ে এবং এনগেজমেন্টের মতো ইভেন্ট দ্রুত সেরে ফেলছেন সংশ্লিষ্টরা। এর ফলেও বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে। বিয়ের আংটির বিক্রি তিনগুন হয়েছে। এক বছরের তুলনায় এনগেজমেন্টের আংটির বিক্রি দ্বিগুন হয়েছে। এসব কারণে সার্বিকভাবে স্বর্ণালংকার বিক্রি বৃদ্ধি পেয়েছে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০  
All rights reserved © shirshobindu.com 2021