শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩১

ব্রিটিশ বাংলাদেশি স্কুল শিক্ষিকার রহস্যজনক মৃত্যু

ব্রিটিশ বাংলাদেশি স্কুল শিক্ষিকার রহস্যজনক মৃত্যু

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ৩৮২
প্রকাশ কাল: বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১

লন্ডনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্কুল শিক্ষিকা সাবিনা নেছার (২৮) রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত চালাচ্ছে। এখন পর্যন্ত খুনি সন্দেহে ৪১ বছর বয়সী এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে জানা যায়, শিক্ষিকাকে একজন অপরিচিত ব্যক্তি হত্যা করেছে এবং একটি পার্কে ফেলে দিয়েছে, এমনটা মনে করা হচ্ছে। আগের রাতে নিখোঁজ হওয়ার পর শনিবার গ্রিনউইচের কিডব্রুকের একটি পার্কে ২৮ বছর বয়সী সাবিনা নেসার লাশ পাওয়া যায়। পুলিশ একটি হত্যার তদন্ত শুরু করেছে এবং বলছে যে শুক্রবার রাত ৮.৩০ টার দিকে একটি পাবে যাওয়ার পথে তাকে হত্যা করা হয়েছে।

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত শনিবার (১৮  সেপ্টেম্বর) বিকালে সাউথ ইস্ট লন্ডনের কিডব্রুক এলাকার ক্যাটর পার্কে একটি কমিউনিটি সেন্টারের পাশে সাবিনার মৃতদেহ পাওয়া যায়। তিনি লুইশাম রাশগ্রিন প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষিকা ছিলেন।

রাশ গ্রিন প্রাইমারি স্কুলের প্রধান শিক্ষক লিসা উইলিয়ামস শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, তিনি ছিলেন একজন মেধাবী শিক্ষক; তিনি ছিলেন দয়ালু, যত্নশীল এবং একেবারে তার ছাত্রদের প্রতি নিবেদিত। তার সামনে তার অনেক জীবন ছিল এবং আরও অনেক কিছু দেওয়ার ছিল এবং তার ক্ষতি অত্যন্ত দুঃখজনক।

সাবিনার চাচাতো ভাই জুবেল আহমেদ বিবিসিকে বলেন, আমরা এখনও শক -এর মধ্যে আছি। এটি কয়েক দিন হয়ে গেছে কিন্তু এটি এখনও ডুবে যায়নি। আমরা সবাই সত্যিই বিধ্বস্ত। তার বাবা -মা একেবারে হতবাক, তারা এখনও অসহনীয় এবং বোধগম্য তাই, তাদের মেয়েকে তাদের কাছ থেকে কোন কাপুরুষ লোকের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়ার কথা শোনা কেবল ভয়াবহ। তিনি সত্যই ছিলেন সবচেয়ে যত্নশীল ব্যক্তি, দয়ালু, মিষ্টি মেয়ে যার সাথে আপনি দেখা করতে পারেন। সাবিনার হৃদয় সোনার মতো ভালো ছিল, কারও সম্পর্কে বলার জন্য তার কখনও খারাপ কথা ছিল না। তার বোন তাকে খুব মিস করতে যাচ্ছে।

তিনি বলেছেন যে, তিনি একটি পরিবার-ভিত্তিক ব্যক্তি এবং একটি প্রাণী প্রেমী ছিলেন যার দুটি পোষা বিড়াল ছিল। জুবেল যোগ করেছেন, সে একজন যত্নশীল ব্যক্তি। তিনি দুটি বিড়াল রেখে গেছেন, যখন আমরা অন্যদিন তার বাড়িতে ছিলাম বিড়ালরা তাকে খুঁজছিল। এই বিড়ালগুলো সত্যিই তাকে মিস করে যাচ্ছে। আমি এই মুহূর্তে আমার দুঃখ প্রকাশ করার জন্য শব্দ খুঁজে পাচ্ছি না।

মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা পরিদর্শক জো গ্যারিটি বলেন, সাবিনা কখনই পাবের কাছে আসেননি এবং পার্ক দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে মনে করা হয়। সাবিনার যাত্রা মাত্র পাঁচ মিনিটের বেশি ছিল না কিন্তু সে কখনোই তার গন্তব্যে পৌঁছায়নি। আমরা জানি যে, এই হত্যাকাণ্ডে স্থানীয় কমিউনিটি হতবাক।

ধারণা করা হয়, সে পেগলার স্কোয়ারের ডিপো বারে বন্ধুর সাথে দেখা করতে এস্টেল রোডে তার বাড়ি থেকে বেরিয়ে ছিলেন। কিন্তু ক্যাটর পার্ক দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় তাকে আক্রমণ করা হয়েছিল। ওয়ানস্পেস কমিউনিটি সেন্টারের কাছে পরদিন সকালে একটি কুকুর-পথচারী আবিষ্কার করেন তার দেহাবশেষ।

লন্ডনের মেয়র সাদিক খান আইটিভির গুড মর্নিং ব্রিটেনকে বলেন, গত বছরের আন্তর্জাতিক নারী দিবস এবং এবারের আন্তর্জাতিক নারী দিবসের মধ্যে, সারা দেশে পুরুষদের হাতে ১৮০ জন নারী নিহত হয়েছেন। নারী ও মেয়েদের প্রতি সহিংসতার ক্ষেত্রে আমাদের একটি মহামারী আছে। আমি মনে করি এই সমস্যা মোকাবেলায় আমাদের পুরুষদের মিত্র হতে হবে।

উল্লেখ্য, সাবিনা দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের লুইশামের রুশে গ্রিন প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষক ছিলেন। এই শিক্ষক গত গ্রীষ্মকাল থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কর্মরত ছিলেন এবং এর আগে প্রায় তিন বছর অ-ইংরেজি ভাষাভাষীদের ভাষা দক্ষতা শিখতে সাহায্য করেছিলেন। তিনি বেডফোর্ডশায়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে তার শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পন্ন করার আগে গ্রিনউইচ বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞান অধ্যয়ন করেছিলেন।

তার গ্রা‌মের বাড়ি বাংলাদেশের সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার দাওরাই গ্রামে। তার মৃত্যুতে লন্ডনের বাংলাদেশি কমিউনিটিতে উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে। সাবিনার স্মৃতির স্বরণে শোকসভা শুক্রবার সন্ধ্যা ৭ টায় অনুষ্ঠিত হবে।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
All rights reserved © shirshobindu.com 2021