বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৯:৫০

মুসলিম হওয়ায় মন্ত্রিত্ব হারান নুসরাত গনি!

মুসলিম হওয়ায় মন্ত্রিত্ব হারান নুসরাত গনি!

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ১১৮
প্রকাশ কাল: সোমবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২২

শুধু মুসলমান হওয়ার কারণে মন্ত্রিত্ব থেকে বরখাস্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন যুক্তরাজ্যের সাবেক মন্ত্রী নুসরাত গনি। সানডে টাইমসে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ২০২০ সালে তাকে বরখাস্ত করা হয়। এর জবাব চাইলে কনজারভেটিভ পার্টির চিফ হুইপ মার্ক স্পেন্সার মুসলিম ধর্মকে সমস্যা হিসেবে কারণ দেখান।

যুক্তরাজ্যের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির পার্লামেন্ট সদস্য এবং সাবেক মন্ত্রী নুসরাত গনি দাবি করেছেন, মুসলিম হওয়ার কারণে ২০২০ সালে তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। শনিবার যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম সানডে টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এমন দাবি করেছেন। খবর ইয়ানি শাফাক ও বিবিসির।

বরখাস্ত করার বিষয়ে ব্যাখ্যা দাবি করলে কনজারভেটিভ পার্টির নেতা ও সাবেক পরিবহণবিষয়ক মন্ত্রী নুসরাত ঘানি জানান, তার মুসলিম হওয়াটা ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছিল তখন। তিনি দাবি করেছেন, ডাউনিং স্ট্রিটে একটি সভায় তাকে পার্টি হুইপ বলেছিলেন যে, তার মুসলিম হওয়ার বিষয়টি একটি সমস্যা হিসেবে উত্থাপিত হয়েছিল এবং তার মুসলিম নারী মন্ত্রীর মর্যাদা সহকর্মীদের অস্বস্তিতে ফেলছে।

কনজারভেটিভ চিফ হুইপ মার্ক স্পেন্সার অবশ্য বলেন, নুসরাত গনি আমার প্রতি ইঙ্গিত করেছেন। তার দাবি পুরোপুরি মিথ্যা এবং এটি মানহানিকর। তবে যুক্তরাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী নাদিম জাহাওয়ি এক টুইটবার্তায় বলেছেন, কনজারভেটিভ পার্টিতে ইসলামবিদ্বেষ বা কোনো রকম বর্ণবাদের জায়গায় নেই। অভিযোগের অবশ্যই সঠিক তদন্ত হওয়া উচিত এবং বর্ণবাদের মূলোৎপাটন জরুরি।

এক টুইটে শিক্ষামন্ত্রী নাদিম জাহাবি বলেছেন, কনজার্ভেটিভ পার্টিতে কোনো ইসলামভীতি বা বর্ণবাদের কোনো রকম স্থান নেই। তাই এ অভিযোগকে যথাযথভাবে তদন্ত করতে হবে এবং বর্ণবাদকে উৎখাত করতে হবে। এ অবস্থায় কনজার্ভেটিভ পার্টির মধ্যে বড় রকম উত্তেজনা সৃষ্টি করবে বলে মনে করছেন বিবিসির রাজনৈতিক প্রতিনিধি ডামিয়েন গ্রামাটিকাস।

কারণ, সামনে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের জন্য কঠিন সময় বলে তিনি মনে করছেন। করোনাভাইরাস মহামারিকালে দেয়া লকডাউনের সময় ১০ ডাউনিং স্ট্রিটে পার্টি দেয়ার যে অভিযোগ উঠেছে জনসনের বিরুদ্ধে, তার তদন্ত অল্প সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করবেন সরকারি কর্মকর্তা সু গ্রে। তিনি বর্তমানে ডাউনিং স্ট্রিটের প্রাইভেট ফ্লাটে জনসনের জমায়েতের বিষয়টি তদন্ত করছেন। এমন সময়ে নুসরাত গণি ওই অভিযোগ এনেছেন।

কনজারভেটিভ দলের ৪৯ বছর বয়সি পার্লামেন্ট সদস্য নুসরাত গনি ব্রিটিশ সরকারের প্রথম মুসলিম নারী মন্ত্রী ছিলেন। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে সাবেক অর্থমন্ত্রী সাজিদ জাভিদের পদত্যাগের পর তাকে বরাখাস্ত করা হয়। নুসরাত গনি ২০১৮ সালে পরিবহণ বিভাগে মন্ত্রী হিসেবে যোগদান করেন। পরবর্তীতে ২০২০ সালে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন সরকারের মন্ত্রিসভায় রদবদল হলে দায়িত্ব হারান তিনি।




Leave a Reply

Your email address will not be published.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022