বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৮:০৪

কমিউনিটির কণ্ঠস্বর হিসেবে ভোট চেয়ে মেয়র প্রার্থী রাবিনা খান এর খোলা চিঠি

কমিউনিটির কণ্ঠস্বর হিসেবে ভোট চেয়ে মেয়র প্রার্থী রাবিনা খান এর খোলা চিঠি

নিউজ ডেস্ক, লন্ডন / ১৪১
প্রকাশ কাল: শুক্রবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২২

টাওয়ার হ্যামলেটস মেয়র নির্বাচনে লিবারেল ডেমোক্র্যাট দলের প্রার্থী রাবিনা খান এর ম্যানুফেস্টো, যা খোলা চিঠি আকারে শীর্ষবিন্দু পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো:

প্রিয় বাসিন্দা,

টাওয়ার হ্যামলেটসে আমার বসতি। এই মাটির সবকিছুই আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। এজন্যই আমি আপনাদের কখনো ছেড়ে যাইনি। এমনকি ২০১৫ এবং ২০১৮ সালের মেয়র নির্বাচনে দ্বিতীয় হবার পরও।

মূলত কমিউনিটির জন্য লড়াই করতেই আমি এখানে থেকেছি। প্রয়োজনের সময় যিনিই আমার কাছে এসেছেন তাকেই সাধ্যমত সেবা দেবার চেষ্টা করেছি। সেবা দিয়েছি করোনা মহামারীর সময়। কাউন্সিলার হিসেবে গত ১২ বছর ধরে আমি আপনাদের এই সেবা দিয়ে যাচ্ছি। এর একটাই কারণ- বাসিন্দারা আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ, কোনো পদবি নয়।

সপরিবারে এখানে বসবাসের কারণে এখানকার বহু বৈপরিত্যের সাথে আমি পরিচিত। এখানে প্রতিদিনই দেখেছি বিত্তের সাথে দারিদ্র্যর দূঃখজনক সহাবস্থান। উদাহরণ হিসেবে ক্যানেরি ওয়ার্ফের জৌলুসের কথা বলা যায়। যার সাথে বারার দারিদ্রতা, বঞ্চনা এবং স্বাস্থ্য বৈষম্যের দুঃখজনক বাস্তবতার মিল খুঁজে পাওয়া কঠিন।

জাতীয় পর্যায়ে হোক আর টাওয়ার হ্যামলেটসের হোক, রাজনীতির বিষাক্ত পরিবেশের সাথে আমি পরিচিত। অভিজ্ঞতাই আমাকে এর প্রভাবের সাথে মানিয়ে চলতে শিখিয়েছে।

৫ মে অনুষ্ঠেয় মেয়র নির্বাচনে লিবারেল ডেমোক্র্যাট দল থেকে আমি আপনাদের মেয়র প্রার্থী। ২০১৮ সালে এই দলে যোগ দিয়েছিলাম মূলধারার একটি দলের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে নিরাপদ ও সমৃদ্ধশালী বারা হিসাবে টাওয়ার হ্যামলেটস গড়ে তুলার জন্য। আমার মূল্যবোধের সাথে তাদের মিল খুঁজে পেয়েছিলাম।

আমি কাজ করতে গিয়ে এই দলের সাথে আরো ঘনিষ্ঠ হয়েছি। মাইনোরিটি কমিউনিটির অংশগ্রহণ বাড়াতে দলের পলিসি পরিবর্তনে ভূমিকা রেখেছি। আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে প্রভাব ফেলে এমন বিষয়ে হাউজ অব লর্ডসকে পরামর্শ দিয়েছি। দলের লিডার স্যার এড ড্যাভি এমপি ওয়াটনি মার্কেটে এনেছি। তিনি স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলেছেন। কথা বলেছেন কোভিড ও ক্ল্যাডিং নিয়ে উদ্বিগ্ন বাসিন্দাদের সাথে। আমাদের সমস্যাগুলো নিয়ে আমি ইন্ডিপেন্ডেটসহ মূলধারার বিভিন্ন মিডিয়ায় নিয়মিতভাবে কলাম লিখেছি। লিখেছি আর্ন্তজাতিক পর্যায়েও। কথা বলেছি বিবিসি, আইটিভি এবং চ্যানেল ফোরে।

টাওয়ার হ্যামলেটসের বাসিন্দাদের হয়ে জাতীয় পর্যায়ে কথা বলার জন্য আমি নিজেকে ইতিমধ্যে কমিউনিটির কণ্ঠস্বর এবং একজন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছি।

আপনি যদি মনেপ্রাণে আমাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করেন তাহলে আপনাদের আমি জাতীয় রাজনীতির প্রাণকেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারব।

যা কিছু ভাল তাইতো টাওয়ার হ্যামলেটসের প্রাপ্য। আপনার ভোটই পারে এই নির্বাচনে পরিবর্তন আনতে।

গর্বের সাথে বলতে পারি লিজ হোল্ডার, শেয়ার্ড ওনার্স, সোশ্যাল হাউজিংয়ে থাকা বাসিন্দা এবং প্রাইভেট রেন্টার্সদের হয়ে লড়াইয়ে আমি সবসময়ই সক্রিয়। আমাদের প্রাইভেট ল্যান্ডলর্ড এবং স্যোশাল রেন্ট সেক্টরকে জবাবদিহিতায় আনার জন্য দরকার নিবেদিত এনভায়রনমেন্টাল হেলথ টিম।

আমি ইতিপূর্বে হোয়াইটচ্যাপেল ভিশন প্রজেক্টকে নেতৃত্ব দিয়েছি, যুক্ত থেকেছি বেশ কিছু রিজেনারেশন প্রজেক্টে। হাউজিংয়ের জন্য বিনিয়োগ নিশ্চিতের পাশাপাশি সর্বোচ্চ নিউহোম বোনাস প্রাপ্তিতে ভূমিকা রেখেছি। ফ্রি স্কুল মিলের জন্য ক্যাম্পেইন করেছি।

কোভিডের কারণে পড়াশুনার ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে তরুণ- তরুণীদের আরো সহযোগিতা দরকার। আমি বারার ব্যবসায়ী এবং জীব বিজ্ঞানে বিনিয়োগের জন্য লড়াই করে চলেছি। আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে উৎসাহিত করে তুলতে দরকার আরো সুযোগ। নাইফ ক্রাইম থেকে বাঁচার জন্য দরকার জনস্বাস্থ্য নীতি এবং কমিউনিটি এ্যাপ্রোচ। এই নাইফ ক্রাইম আমাদের বহু পরিবারকে ধ্বংস করেছে।

লেবারের অবহেলার জন্য আমিই একমাত্র বিকল্প।

আমরা কাউন্সিল ট্যাক্স বৃদ্ধি, পাবলিক সার্ভিসে বাজেট কাট, খারাপ অফস্ট্যাড প্রতিবেদন, ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার এবং রিসাইক্লিং কালেকশনে ব্যর্থতা দেখেছি। এর সাথে যোগ হয়েছে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি।

এমন হবার কথা ছিল না। তাই আমাদের পরিবর্তন দরকার। দরকার এমন মেয়র যিনি সকল দিক দিয়ে আমাদেরকে দেখভাল করবেন। বহুজাতিক মূল্যবোধ তথা মূলধারার রাজনৈতিক দলের সদস্য এবং আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল মেয়র ছাড়া কোন বিকল্প নেই।

তাই আপনাদের প্রতি অনুরোধ- ভোট দেয়ার সময় কোন মেয়র সকল কমিউনিটির প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন তা বিবেচনায় রাখুন। কে আপনার সমস্যা আর উদ্বেগগুলোকে জাতীয় সরকারের নজরে আনতে পারবেন তাও বিবেচনায় রাখুন। বিচেনায় রাখুন জিএলএ, হাউজ অব কমন্স অথবা হাউজ অব লর্ডসে আপনার হয়ে কার কথা বলার সুযোগ রয়েছে।

আমাদের বারার জন্য ভাল নেতৃত্ব দরকার। আপনারাই পারবেন এই দাবী জানাতে।

একটি শক্তিশালী, নিরাপদ, ঐক্যবদ্ধ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন, পরিবেশ বান্ধব এবং সকল কমিউনিটির প্রতিনিধিত্ব করে এমন মেয়রের জন্য আমাকে প্রথম পছন্দ হিসেবে ৫ মে ভোট প্রদান করুন। একটি বিকর্তহীন তথা সুন্দর টাওয়ার হ্যামলেটসের জন্য ভূমিকা রাখুন।

আমি শুধু পরিবর্তনের জন্য কথা বলি না, আমি পরিবর্তনে ভূমিকা রাখি।

সবাইকে শুভেচ্ছা




Leave a Reply

Your email address will not be published.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022