বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ০৯:০৮

ইংল্যান্ডে ইটন কলেজের ডর্নি লেকে জাতীয় নৌকা বাইছ প্রতিযোগিতার আয়োজন

ইংল্যান্ডে ইটন কলেজের ডর্নি লেকে জাতীয় নৌকা বাইছ প্রতিযোগিতার আয়োজন

নিউজ ডেস্ক, লন্ডন / ৫৪
প্রকাশ কাল: বৃহস্পতিবার, ১২ মে, ২০২২

ইংল্যান্ডের অন্যতম প্রসিদ্ধ স্কুল নামকরা ইটন কলেজের ডর্নি লেকে আয়োজন করা হয়েছে বছরের বৃহত্তম জাতীয় নৌকা বাইছ প্রতিযোগিতা।

চলতি বছর আগস্ট মাসের ২১ তারিখ অনুস্টিত হবে এই প্রতিযোগিতা। লন্ডন অলিম্পিকের অফিসিয়াল ভ্যেনু ছিল এটি।

আর তাই এ বছরের জাতীয় নৌকা বাইছ; এর গুরুত্বও বাড়িয়ে দিয়েছে। ঐতিহ্যবাহী নৌকা দৌড়ের এই প্রতিযোগিতা উপভোগ করতে পারবেন এক সাথে প্রায় ৭ হাজার দর্শনার্থী।

বিখ্যাতসব নামকরা ব্যক্তিবর্গ যেখানে চষে বেড়িয়েছেন। সাইন্টিস্ট, মিডিয়া পার্সনালিটি, পলিটিকাল লিডার সহ বর্তমান প্রাইম মিনিস্টার বরিস জনসনের স্কুল এই ইটন কলেজ।

আর তাই এবারের ১২ তম জাতীয় নৌকা বাইছ যুক্ত করেছে বাড়তি আকর্ষণ। গত ৭ই মে ইটন কলেজের লেইক রোমে এক প্রেস কনফারেন্স করে চলতি বছরের ২১ শে আগস্ট বছরের বৃহত্তম জাতীয় নৌকা বাইছ নিয়ে এর বিস্তারিত তুলে ধরেন এর প্রতিষ্ঠাতা উদ্যোক্তা আজিজ উর রহমান।

তিনি বলেন এ বারের নৌকা বাইছ শুধু ভ্যেনুর আকর্ষণ নয়। এই উৎসবকে উৎসর্গ করা হচ্ছে বৃটেনের রাণীর প্লাটিনাম জুবিলী, ইউকে এবং বাংলাদেশের ৫০ বছরের দি-পাক্ষিক সম্পর্কের উদযাপন, বাংলাদেশের গোল্ডেন জুবিলী সেলিব্রেশনকে।

প্রেস কনফারেন্স পরিচালনা করেন আয়োজক টিমের সদস্য রাসেল রহমান। এবারের আয়োজনকে কেন্দ্র করে ৪ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি এ্যাম্বেসেডর হয়েছেন।

এদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যার হাত ধরে ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ আইসিসি ট্রফি ঘরে আনে, বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট টিমের সাবেক প্রধান কোচ স্যার গর্ডন গ্রিনিচ। বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত বাংলাদেশে নিযুক্ত সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরী। ব্যারোনাস পলা উদ্দিন এবং ফুটবলার ম্যাট লি টিজিয়ার

তাছাড়া যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনার সাঈদা মুনা তাসনীম এ বছরের নৌকা বাইছের প্যাট্রন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি বলেন, নৌকা বাইছের মত একটি আকর্ষণীয় খেলাতে বাংলাদেশ হাইকমিশনার হিসেবে প্যাট্রন হিসেবে থাকতে পেরে অনেক আনন্দিত। এই উৎসব বাংলাদেশে এই খেলাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ঐতিহ্যবাহী এই নৌকা বাইছ শুধু একটি খেলা নয় এর মাধ্যমে নদীমাতৃক বাংলাদেশের বর্ণিল চিত্র ফুটে উঠবে বলে মনে করছেন আগত অনেকেই।

আর তাই সবাই এই উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করেন। শেকড়ের সন্ধানে এই প্রতিযোগিতার একজন আয়োজক হতে পেরে আনন্দিত নতুন প্রজন্মের রুমেল রহমান।

অংশগ্রহণকারীদের উৎসাহিত করতে, প্রথম পুরস্কার ৫ হাজার পাউন্ড এবং ১৮ ক্যারটের সোনা খচিত ট্রফি। ২য়, ৩য় এবং ৪র্থ অধিকারীদের জন্য রয়েছে ২ হাজার, ১ হাজার এবং ৫০০ টাকার প্রাইজ মানি।

অংশগ্রহণকারীদের প্রত্যেক টিমকে ১ হাজার পাউন্ড দিয়ে আবেদন করতে হবে। দর্শনার্থীদের জন্য থাকবে না কোন এন্ট্রি ফি। আর তাই পরিবার নিয়ে বিখ্যাত ইটন কলেজ প্রাঙ্গন ঘুরে আসার এক সুযোগ করে দিচ্ছে ২১ আগস্টের জাতীয় এই নৌকা দৌড়।




Leave a Reply

Your email address will not be published.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022