সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:২১

এনাম আলী এমবিই একজন কিংবদন্তির বিদায়

এনাম আলী এমবিই একজন কিংবদন্তির বিদায়

শফিকুল ইসলাম, লন্ডন / ১৩৯
প্রকাশ কাল: রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০২২

কারী অস্কার খ্যাত ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের প্রতিষ্ঠাতা এনাম আলী এমবিই আর নেই। আজ রোববার ভোর রাত তিনটায় সারের একটি হাসপাতালে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো প্রায় ৬২ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী সকিনা আলী, এক মেয়ে জাষ্টিন আলী, দুই ছেলে জেফ্রি আলী ও জায়েদ আলীসহ চার ভাই , তিন বোন অসংখ্য আত্মীয় স্বজন ও গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত হয়ে গত দুই সপ্তাহ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ ভোরে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। বাংলাদেশ তথা এশিয়ান রন্ধন শিল্পকে ব্রিটিশ মূলধারার অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার অন্যতম কারিগর ছিলেন এনাম আলী।তিনি নব্বই দশকের শুরুতে গিল্ড অব বাংলাদেশী রেস্টুরেটসর গঠন ও এর মাধ্যমে হাউজ অব কমন্সে “ডাইন বাংলাদেশ” ক্যামপেইন পরিচালনা করে বাংলাদেশী রেস্টুরেন্ট ব্যবসাকে স্বনামে পরিচিতি করার কাজে হাত দেন।

তিনি প্রথমত শেফ অব দ্যা ইয়ার নির্বাচিত হয়ে লাইম লাইটে আসেন এবং সেই সময়ে লীরাজ এভিয়ন নামে উড়ন্ত রেস্টুরেন্টের জন্ম দিয়ে ব্রিটিশ মিডিয়ায় আলোড়ন সৃষ্টি করেন।

এনাম আলী ১৯৯৮ সালে রেস্টুরেন্ট ম্যাগজিন স্পাইস বিজনেস প্রকাশের মাধ্যমে ব্রিটিশ অর্থনীতির নিয়ামক শক্তি বাঙালির কারী ইন্ডাষ্ট্রিকে ব্রিটিশ মূলধারায় নিয়ে যাওয়ার সংগ্রাম শুরু করেন। সারের বিখ্যাত লী রাজ রেষ্টুরেন্টের স্বত্বাধিকারী স্বপ্নবাজ মি: আলী স্পাইস বিজনেস প্রকাশনা শুরু করেই ক্ষান্ত হননি, কারী ইন্ডাষ্ট্রিকে ব্রিটেনসহ বিশ্ব নাগরিকদের মনোযোগের কেন্দ্রে নিয়ে যেতে চালু করেন ঝাকঝমকপূর্ণ বার্ষিক এওয়ার্ড অনুষ্ঠান ‘ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ড’।

বিগত ১৬ বছর ধরে প্রতি বছর অনুষ্ঠিত এই এওয়ার্ড অনুষ্ঠানগুলোতে কয়েকজন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী সহ মেইন ষ্টীম রাজনীতিবিদসহ হাই প্রোফাইল সেলিব্রেটিরা অংশ নিয়ে আসছেন। কারী ইন্ডাষ্ট্রির সাথে জড়িতদের মূলধারায় স্বীকৃতি সর্ব প্রথম ব্রিটিশ কারী এওয়ার্ডের মাধ্যমেই শুরু হয়।

কারী শিল্পে অনন্য অবদানের জন্য ২০০৯ সালে এই কারি কিংবদন্তী ভূষিত হন এমবিই খেতাবে। ২০১১ সালে তাকে ‘ফ্রিডম অব দ্যা সিটি অব লন্ডন’ সম্মাননায় সম্মানিত করা হয়। তিনি সব সময় বাংলাদেশী কমিউনিটির স্বার্থ সংরক্ষনে তৎপর ছিলেন। ২০১৭ সালে অক্টোবরে তিনি বিবিসিসিআই’র প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলে সিলেট চেম্বারের সাথে যৌথ ভাবে সিলেটে এনআরবি কনভেনশন এনআরবিদের নিয়ে বিশ্ব সম্মিলনীর আয়োজনটি ছিল ঐতিহাসিক পদক্ষেপ। যেখান থেকে এনআরবি ডে’র ঐতিহাসিক ঘোষনা উচ্চারিত হয় আজকের পররাস্ট্র মন্ত্রী ডঃ একে আব্দুল মোমেন সাহবের মুখ দিয়ে।

এনাম আলী এমবিই’র ১ম নামাজে জানাজা আগামী মঙ্গলবার বাদ জোহর ইষ্ট লন্ডন মসজিদ এবং দ্বিতীয় নামাজে জানাজা সারের এপসম সিমেট্রী প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হবে এবং এই কবরস্থানেই চির নিদ্রায় শায়িত হবেন তিনি।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022