সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৮:০৯

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানা!

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানা!

শীর্ষবিন্দু নিউজ, লন্ডন / ৭৯
প্রকাশ কাল: শনিবার, ২১ জানুয়ারী, ২০২৩

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক গাড়িতে সিটবেল্ট না পরায় জরিমানার মুখে পড়েছেন। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) উত্তর ইংল্যান্ডে সফরকালে সিট বেল্ট না পরে চলন্ত গাড়িতে ভিডিও ধারণ করেন ঋষি সুনাক।

ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, সুনাক চলন্ত গাড়িতে সিটবেল্ট ছাড়াই কথা বলছেন। এরপরই ল্যাঙ্কাশায়ার পুলিশ তাকে জরিমানা করলো। এর আগে যদিও বিষয়টির জন্য ক্ষমা চেয়েছিলেন সুনাক।

স্কাই নিউজ জানিয়েছে, জরিমানার বিষয়টি মেনে নিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তার কার্যালয় থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী স্বীকার করে নিয়েছেন যে, তিনি ভুল করেছেন এবং এ জন্য তিনি ক্ষমা চেয়েছেন।

শুক্রবার ল্যাঙ্কাশায়ার পুলিশ টুইটারে জানিয়েছে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ল্যাঙ্কাশায়ারে চলন্ত গাড়িতে এক ব্যক্তি সিটবেল্ট পরেননি। তাই শুক্রবার আমরা লন্ডনের ৪২ বছর বয়সি ব্যক্তিকে শর্তসাপেক্ষ নির্দিষ্ট শাস্তির প্রস্তাব দিয়েছি।

টুইটে ঋষি সুনাকের পরিচয় উল্লেখ করা হয়নি। ঋষি সুনাক ইতিহাসের দ্বিতীয় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী যিনি দায়িত্বে থাকা অবস্থায় আইন ভঙ্গ করেছেন। এর আগে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও দায়িত্বে থাকার সময় আইন ভেঙেছিলেন।

সুনাকের ওই ভিডিও সম্পর্কে তার মুখপাত্র জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণের জন্য সিটবেল্টটি খুলেছিলেন। তিনি নিজে স্বীকার করেছেন তা ভুল হয়েছিল। মুখপাত্র আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী মনে করেন, সকলের সিটবেল্ট পরা উচিত।

সুনাক দেশে একশোটিরও বেশি প্রকল্পে অর্থায়নের জন্য তার সরকারের নতুন লেভেলিং আপ ফান্ড ঘোষণার প্রচার করার জন্য একটি ভিডিও করেন। চলন্ত গাড়ির পিছনের সিটে বসেই সেই ভিডিওটি করেন সুনাক। ভিডিও রেকর্ডিংয়ের সময় সিটবেল্ট খুলে নেন। আর এ জন্যেই এবার তাকে জরিমানা দিতে হবে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, মূলত ভিডিও ধারণ করার জন্য তিনি নিজেই সিট বেল্ট সরিয়েছিলেন। সেই ভিডিও তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে শেয়ার করার পর এ নিয়ে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়। এক পর্যায়ে বিষয়টির জন্য তিনি ক্ষমাও চান।

দেশটির প্রধানমন্ত্রীর সড়ক আইন ভঙ্গ করা নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছেন বিরোধীদল লেবার পার্টির নেতারা। দলটির মুখপাত্র বলেন, কীভাবে সিট বেল্ট পরতে হয়, ডেবিট কার্ড, ট্রেন সার্ভিস ব্যবহার করতে হয়, কীভাবে অর্থনীতি ও দেশ পরিচালনা করতে হয়, ঋষি সুনাকের তা জানাই নেই।

ব্রিটেনের আইন অনুযায়ী, চলন্ত গাড়িতে ভ্রমণের সময় সিট বেল্ট না পরাকে অপরাধ হিসেবে ধরা হয়। এক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক ১০০ পাউন্ড জরিমানা হতে পারে। আর বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ালে শাস্তিস্বরূপ জরিমানার পরিমাণ হতে পারে ৫০০ ইউরো পর্যন্ত।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
All rights reserved © shirshobindu.com 2022