বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৯:২০

হেমন্তেই প্রকৃতিতে শীতের আমেজ

হেমন্তেই প্রকৃতিতে শীতের আমেজ

কার্তিক মাস সবে শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে গ্রামীণ জনপদে বইতে শুরু করেছে উত্তুরে হাওয়া।

বিকেল শেষে সন্ধ্যা হতেই আবছা কুয়াশার চাদরে ঢেকে যাচ্ছে প্রকৃতি। সকালে ঘাসের শিশির জানান দিচ্ছে শীত আসছে।

হেমন্তের শুরুতেই সিরাজগঞ্জে শীতের আমেজ শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। ভোরে ঘন কুয়াশায় ঢেকে থাকছে চার পাশ। লতাপাতা, ধানের পাতা আর ঘাষে চকচক করছে ভোরের শিশির। সারা দিন একটু গরম অনুভূতি হলেও দুপুরের পর রোদের তাপমাত্রা দিচ্ছে উষ্ণতার অনুভব। সন্ধ্যার পরেই শুরু হয় শীতের আমেজ।

সিরাজগঞ্জ একটু দেরিতে হলেও শীত প্রায় চলেই এসেছে। গত কয়েক দিন ধরেই ভোর রাত থেকে ঘন কুয়াশা দেখা দিচ্ছে। এ সময় মহাসড়কগুলোতে যানবাহন কিছুটা হলেও ধীর গতিতে চলাচল করতে দেখা যায়।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আনোয়ার সাদাত জানান, জেলার বিভিন্ন স্থানে ভোরের দিকে শিশির কণা জানান দিচ্ছে শীতের আগমনি বার্তা।

দিনে গরম থাকলেও ভোরে ও সন্ধ্যায় হালকা কুয়াশা পড়ছে উত্তরের জেলা নীলফামারীর সৈয়দপুরে। ইতিমধ্যে গরিব ও অভাবী মানুষগুলো পুরোনো কাঁথা ও লেপতোশক নতুন করে সেলাই করে শীতের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। রাতে সব বয়সি মানুষের শরীরে কাঁথা ও হালকা কম্বল জড়াতে হচ্ছে।

শীতের সঙ্গে সঙ্গে আগাম সবজি চাষ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন প্রান্তিক চাষিরা। মুলা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, লাউ, টম্যাটো, লালশাকসহ বিভিন্ন শীতকালীন সবজির আগাম চাষাবাদ করেছেন। এ বছর আগাম শীত এসে যাওয়ায় অনেকের আশঙ্কা, পুরো শীত মৌসুমে এর তীব্রতা বেড়ে যাবে।

সৈয়দপুর আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লোকমান হাকিম জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে শুরু করেছে।

মূলত পৌষ ও মাঘ এই দুই মাস শীতকাল ধরা হলেও এ বছর আশ্বিন-কার্তিকের দিকেই শীত শুরু হয়েছে। এ বছর শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে বলে জানান এ কর্মকর্তা। বৈরী আবহাওয়ার কারণে বিমান চলাচলে কিছুটা বিঘ্ন সৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

সন্ধ্যা হতেই শীত অনুভব হচ্ছে দেশের উত্তরের জেলা কুড়িগ্রামের সীমান্তবর্তী ফুলবাড়ী উপজেলায়। রাত যত বাড়ে, তত শীতের অনুভবও বৃদ্ধি পায়। সকাল ৮ থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত দেখা মিলছে ঘন কুয়াশারও। ফসলের মাঠে উঁকি দিচ্ছে নতুন বীজের প্রস্ফুটিত চারা।

তাতে শিশিরবিন্দু ছড়িয়ে দিচ্ছে মৃদু শীতলতা। রাতে সব বয়সি মানুষদের শরীরে হালকা কাঁথা ও কম্বল জড়াতে হচ্ছে। এ অঞ্চলে আগাম শীতের দেখা পাওয়ায় পুরো শীতকাল আসা মাত্রই শীতের তীব্রতা বেড়ে যাবে বলে স্থানীয়রা জানান।

এদিকে শীতের আগাম সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পার করছে প্রান্তিক চাষিরা। কোমর বেঁধে ফসলের মাঠে মুলা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, লাউ, টম্যাটো, লাল শাকসহ বিভিন্ন ধরনের আগাম শীতকালীন সবজি চাষাবাদ করতে শুরু করেছে।

এ প্রসঙ্গে কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার জানান, টানা এক সপ্তাহ ধরে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে শুরু করেছে।

মূলত, পৌষ-মাঘ এই দুই মাস শীতকাল ধরা হলেও এ বছর আশ্বিন-কার্তিকের দিকেই শীত আসতে শুরু করেছে। এ বছর শীতের তীব্রতা বাড়তে পারে বলে জানান এ কর্মকর্তা।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024