রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০১:০৭

ঢাকায় ময়লা স্তূপে বস্তাবন্দি মানুষের হাড়

ঢাকায় ময়লা স্তূপে বস্তাবন্দি মানুষের হাড়

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শীর্ষবিন্দু নিউজ: মানবদেহের বিচ্ছিন্ন হাড়গোড়। হাড়ের সঙ্গে রক্ত-মাংস শুকিয়ে একাকার। মাংস খসে মাথার খুলি বের হয়ে গেছে। বিচ্ছিন্ন হাত-পায়ের অংশ। গতকাল এমনই এক বীভৎস দৃশ্য দেখা গেলো খোদ রাজধানীর একটি ময়লার ভাগাড়ে। মাতুয়াইলের সিটি করপোরেশনের ভাগাড় থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় মানুষের এ হাড়গোড় উদ্ধার করা হয়েছে।

যাত্রাবাড়ী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, মাতুয়াইলের মৃধাবাড়ি এলাকায় সিটি করপোরেশনের পরিছন্নকর্মীরা ময়লা স্তূপ সরানোর সময় মাথার খুলিসহ শরীরের বিভিন্ন অংশের হাড় দেখতে পেয়ে তারা পুলিশে খবর দেয়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এস এম জাবেদ ইকবাল জানান, বস্তার ভেতরে হাড় খুলি পাওয়া যায়। পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের তথ্যের ভিত্তিতে তিনি সেখানে গিয়ে পুলিশকে খবর দেন। এরপর পুলিশ এগুলো উদ্ধার করে।

পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য হাড়গোড়ের পরীক্ষা করতে মিডফোর্ড হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। সেখান থেকে নমুনা নেয়া হবে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে। গুম ও গুপ্ত হত্যা নিয়ে চলা সমালোচনার মধ্যে একসঙ্গে একাধিক মানুষের দেহাবশেষ উদ্ধারে নতুন করে প্রশ্ন দেখা দেবে বলে মনে করছেন অপরাধ বিশেষজ্ঞরা। ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনে গতকাল থেকেই মাঠে নেমেছে গোয়েন্দারা। ঘটনাস্থল থেকে সব ধরনের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।

বস্তার মধ্যে দু’টি মাথার খুলি থাকায় পুলিশ ও তদন্তকারীরা দু’জনের লাশের বিষয়ে স্পষ্ট ধারণা পেয়েছেন। তবে তারা জানিয়েছেন আলামত দেখে মনে হয়েছে লাশের সংখ্যা আরও বেশি হবে। তাদের হত্যা করে লাশ লুকানো হয়েছিল নাকি অন্য কোন ঘটনার শিকার তারা এ বিষয়ে প্রাথমিকভাবে কিছুই জানাতে পারেনি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা।

পুলিশ সূত্র জানায়, একটি পুরুষাঙ্গের অংশ পাওয়া একজন পুরুষের বিষয়েও নিশ্চিত হওয়া গেছে। লাশের অংশ  ও হাড় উদ্ধার করে মিটফোর্ট সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে ডিএনএ প্রোফাইল সংগ্রহ করে, পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর পরিচয় শনাক্ত করার চেষ্টা করা হবে। একই সঙ্গে জানা যাবে কত দিন আগে তাদের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ধারণা করছে বস্তাবন্দি মৃতদেহগুলো প্রায় এক মাস আগের। হত্যা করার পর রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করায় লাশগুলো শুকিয়ে গেছে বলে তদন্ত সূত্র জানিয়েছে।

গতকাল সকালে পরিত্যক্ত কাচ, লোহার জিনিস খুঁজতে প্রতিদিনের মতো টোকাইরা ময়লার স্তূপে প্লাস্টিকের বস্তার পাশে মাছি ভন ভন করে উড়তে দেখে। মানুষের হাড় ও কঙ্কালের আলামত দেখে তারা সিটি করপোরেশনের লোকজনকে জানায়। বস্তার কাছে গিয়ে পরিছন্নকর্মীরা দেখতে পান মৃত মানুষের মাথার খুলি, পা এবং শরীরের হাড়গোড়। পরে পুলিশকে  খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে আশপাশের লোকজনও ভিড় করেন সেখানে। ছুটে যান স্থানীয় থানা পুলিশ ও গোয়েন্দা বিভাগের লোকজন। তারা ৭টি বস্তা থেকে পরিচয়হীন মানুষের কঙ্কালসার উদ্ধার করে পরীক্ষা-নীরিক্ষা করেন। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শরীরের অংশ বিশেষের প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলে। দুপুরের পর নমুনাগুলো নেয়া হয় হাসপাতালে।

সূত্র জানায়, উদ্ধার করা মাথার খুলি, হাত ও পা এবং শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের খণ্ডিত মোট ১৬ টুকরো হাড় উদ্ধার করা হয়েছে। কঙ্কালসার থেকে প্রাথমিকভাবে একজন পুরুষ এবং একজন মহিলার লাশ হতে পারে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়। একটি হাতের নখের অংশে নেইল পলিশ থাকায় লাশটি মহিলার বলে শনাক্ত করে পুলিশ। মাথার খুলি এবং পা-সহ শরীরের মোট ১৬ টুকরো অংশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনার রহস্য উদ্ঘাটনে পুলিশ এবং গোয়েন্দা পুলিশ টিম মাঠে কাজ করছে।

 




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024