রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০২:৫০

নিম্নবিত্তদের বিবাহে অনীহা

নিম্নবিত্তদের বিবাহে অনীহা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

অর্থনৈতিক চাহিদা মেটানোর যুদ্ধে বিয়ে করার আগ্রহ হারিয়ে ফেলছেন নিম্নবিত্তরা। সমপ্রতি এক জরিপে এমনটাই জানতে পেরেছেন বিশেষজ্ঞরা। ইউনিভার্সিটি অব ভার্জিনিয়া এবং ইউনিভার্সিটি অব হার্ভার্ড-এর গবেষকদের মতে চাকরির অনিশ্চয়তা ও স্বল্প আয়ের কারণে ব্লু কলার শ্রমিকরা তাদের জীবনে অর্থবহ সম্পর্কের বন্ধন নিয়ে একেবারেই নিরাশ। সমাজবিজ্ঞানী সারাহ কোর্স জরিপটি পরিচালনা করেন।

তিনি বলেন, খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষদের সুযোগ-সুবিধা কম এবং কাজের অনিশ্চযতার কারণে জীবনে স্থিতিশীলতাও কম। গঠনমূলক একটি ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করার কোন ক্ষমতা তাদের নেই কেননা বেঁচে থাকার সংগ্রামেই তাদের সবটুকু নিবেদিত। কাজের অনিশ্চয়তা থাকলে যেটা জীবনের অন্যান্য ক্ষেত্রেও প্রভাব ফেলে। তিনি আরও বলেন, বিয়ে-শাদী এখন একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে আবির্ভূত হয়েছে যা কিনা মধ্যবিত্ত মর্যাদার স্বীকৃতি দিচ্ছে। জরিপে দেখা গেছে শিক্ষিত মধ্যবিত্ত সমপ্রদায় নিম্নবিত্তদের তুলনায় সফলতার সঙ্গে অনিশ্চিত কাজের সমস্যা উত্তরণ করে যেতে পারে, যে কারণে তারা তাদের জীবনে অর্থবহ সম্পর্কের বন্ধন প্রতিষ্ঠা করতে পারে।

হার্ভার্ডের সমাজবিজ্ঞানী জেনিফার সিলভা উল্লেখ করেন, যারা অনিশ্চয়তার মধ্য দিয়ে জীবন যাপন করছে তাদের মধ্যে প্রতারিত হওয়ার আশঙ্কা বেশি কাজ করে। কাজেই তারা সম্ভাব্য সঙ্গীদের প্রতি সহজে বিশ্বাস স্থাপন করতে পারে না। এছাড়াও বৈষয়িক ও অর্থনৈতিক চাহিদা মেটানো তাদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। এর পাশাপাশি বিয়ের জন্য মানসিকভাবে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হওয়াটা তাদের কাছে দুঃসাধ্য বলেই প্রতীয়মান হয়।

ভার্জিনিয়া ও হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির গবেষকরা ৩০০ রও বেশি নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্ত নারী-পুরুষের সাক্ষাৎকার নেন। আমেরিকার বিভিন্ন প্রান্তের এবং বিভিন্ন স্তরের যোগ্যতাসম্পন্ন জরিপে অংশগ্রহণকারীদের বয়স ১৮-৭০-এর মধ্যে। এর মধ্যে বিবাহিত, অবিবাহিত, তালাকপ্রাপ্ত, বিধবা সব ধরনের মানুষের সঙ্গে বিস্তারিত আলাপচারিতার পরই এ উপসংহারে উপনীত হন গবেষকরা।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
All rights reserved © shirshobindu.com 2012-2024