রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০:৩১

আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে শিনজো আবেকে জিজ্ঞাসাবাদ

আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে শিনজো আবেকে জিজ্ঞাসাবাদ

/ ৬৭
প্রকাশ কাল: বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০

শীর্ষবিন্দু আর্ন্তজাতিক নিউজ: জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেকে আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন গার্ডিয়ান।

অনলাইন গার্ডিয়ান বলেছে, এই অভিযোগে তার যে ভাবমূর্তি ছিল তা ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। দুর্বল হতে পারে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা’র অবস্থান।

২০১৫ থেকে গত বছর পর্যন্ত রাজধানী টোকিওতে চেরি ফুল ফোটা উৎসব দেখার জন্য বার্ষিক পার্টি আয়োজন করা হতো। সেখানে যেসব নেতাকর্মী উপস্থিত হতেন তাদের রাতের খাবারের আয়োজন করা হতো। কিন্তু এ বিষয়ে রিপোর্ট করা হতো না। অর্থাৎ বিষয়টি গোপন করা হতো। এ বছর আগস্টে শারীরিক অসুস্থতার কারণে পদত্যাগ করেন শিনজো আবে।

প্রসিকিউটররা তার সেক্রেটারির বিরুদ্ধে একটি মামলা করতে চান। সে জন্য তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান তারা। এতে এ সপ্তাহে স্বেচ্ছায় প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছেন শিনজো আবে। কিন্তু তিনি বেশ চাপের মুখে রয়েছেন। রাজনৈতিক সমর্থকরা ওইসব পার্টি আয়োজন করতেন। এ বিষয়ে তার বক্তব্য পরিষ্কার করতে বলা হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শিনজো আবে বার বার তার এমপিদের বলেছেন, এক্ষেত্রে কোনো অসামঞ্জস্যতা ঘটে নি। ওদিকে মঙ্গলবার দিনের শেষে বার্তা সংস্থা কিয়োদো বলেছে, এখনকার মতো শিনজো আবের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়ার পরিকল্পনা করছেন না। জাপানে ১৯৫২ সাল থেকে প্রতি বছর চেরি ফোটা উৎসব দেখার জন্য পার্টি আয়োজন করে আসছেন প্রধানমন্ত্রীরা। এর মাধ্যমে স্পোর্টস তারকা, সেলিব্রেটি এবং যার যার ক্ষেত্রে স্বনামখ্যাত এমন ব্যক্তিকে আমন্ত্রণ জানিয়ে থাকেন।

কিন্তু সমালোচকরা বলেন, এই ইভেন্ট ব্যবহার করে সরকার তার রাজনৈতিক সমর্থকদের পুরষ্কৃত করে থাকে। গার্ডিয়ান লিখেছে, এ ঘটনায় শিনজো আবে’র ভাবমূর্তি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। দুর্বল হতে পারে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী সুগা’র অবস্থান। কারণ, আট বছর ধরে শিনজো আবের প্রধান মুখপাত্র ছিলেন তিনি।

তিনি ওই সময়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রী আবে’র বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠার পর তার পক্ষ নিয়েছিলেন। বিরোধী দলীয় এমপিরা দাবি জোরালো করেছেন। তারা ওইসব নৈশভোটের অর্থ কোথা থেকে এসেছিল তার ব্যাখ্যা দাবি করেছেন। কেন সুগা আগে ওই অভিযোগ ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করেছেন তারও উত্তর চাইছেন তারা।

উল্লেখ্য, জাপানে বার্ষিক খরচের খাত প্রদর্শনে ব্যর্থতা সেখানকার রাজনৈতিক অর্থায়ন বিষয়ক আইনের সম্ভবত লঙ্ঘন। যারা ইয়ামাগুচি অঞ্চলে ওই অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন চেরি ফোটা দেখতে তাদের প্রতিজনের নৈশভোজে ৩৬ ডলার করে খরচ হয়েছে বলে বলা হয়েছে। তারা এ সময় সেখানে বিলাসবহুল হোটেলে অবস্থান করতেন। হোটেলের রিসিপ্টে দেখা গেছে, দুটি বিলাসবহুল হোটেলে ব্যাংকুয়েট স্টাইলের খাবারে ৫ বছরের বেশি সময়ে খরচ হয়েছে ২ কোটি ৩০ লাখ জাপানি ইয়েন।




Comments are closed.



পুরানো সংবাদ সংগ্রহ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
All rights reserved © 2021 shirshobindu.com